নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় এক নারীসহ দুই সাংবাদিককে মারধরের ঘটনার মূল নায়ক ওসমান গনিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১-এর একটি দল। মঙ্গলবার রাতে ফতুল্লার বক্তাবলী ইউনিয়নের আকবরনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওসমান গনি ওই এলাকার সামাদ আলীর ছেলে। সামাদ আলী ও তার ছেলে ওসমান গনির বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

গত শনিবার আকবরনগর এলাকায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে ওসমান গনি ও তার সহযোগীদের হামলার শিকার হন আনন্দ টেলিভিশন ফতুল্লা থানা প্রতিনিধি মনি ইসলাম ও

এশিয়ান টেলিভিশনের ক্যামেরাপারসন আবু বক্কর। এ ঘটনায় মনি ইসলাম থানায় ওসমান গনিসহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

গতকাল বুধবার দুপুরে র‌্যাব-১১-এর প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশা জানান, ওই ঘটনায় দায়েরকৃত মামলাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে র‌্যাব। পরে মঙ্গলবার রাতে আকবরনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওসমান গনিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় র‌্যাব। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত আসামি নারী সাংবাদিকের ওপর হামলা ও মারধরের কথা স্ব্বীকার করেছে। হামলায় জড়িত অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে র‌্যাবের অভিযান

অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য করুন