মিথ্যা বলে মেয়েটিকে ডেকে নেয় ইভান

বনানীতে অভিনেত্রী ধর্ষণ

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৭

সমকাল প্রতিবেদক

বনানীর 'ন্যাম ভিলেজে'র বাসায় টিভি অভিনেত্রী তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনাটি ছিল পূর্বপরিকল্পিত। সেদিন ওই বাসায় জন্মদিনের কোনো অনুষ্ঠান ছিল না। ধর্ষণের উদ্দেশ্যে মিথ্যা কথা বলে তাকে ডেকে নেয় বাহাউদ্দিন ইভান। এরপর নিজের ঘরে নিয়ে নেশাদ্রব্য খাইয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করে। চারদিনের রিমান্ডে থাকা ইভানকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্ত সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। ওই তরুণী এখনও পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।
পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন সেন্টারের উপ-কমিশনার ফরিদা ইয়াসমীন সমকালকে জানান, তরুণী যে অভিযোগ করেছেন প্রাথমিকভাবে তার সত্যতা পাওয়া গেছে। তাছাড়া আসামিও ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।
তদন্ত-সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, শুক্রবার ইভানকে চার দিনের রিমান্ডে নেওয়ার পর বনানী থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়। ধর্ষণের কথা সে আগেই স্বীকার করেছে। এখন এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে। এর আগে সে আরও কাউকে ধর্ষণ করেছে
কি-না সে ব্যাপারেও জানতে চাওয়া হচ্ছে। বিশেষ করে ধর্ষণের দৃশ্যের ভিডিও উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। ইভান জানিয়েছে, ওই তরুণীর সঙ্গে তার আগে থেকেই পরিচয় ছিল। সেই রাতে তাকে বাসায় ডাকার অজুহাত হিসেবে জন্মদিনের কথা বলেছে সে। ঘটনার সময় সে নেশাগ্রস্ত ছিল বলেও দাবি করে।
এদিকে তরুণীকে গতকাল উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন সেন্টার থেকে নিয়ে যান তদন্ত কর্মকর্তা বনানী থানার এসআই সুলতানা আক্তার। কিছু শারীরিক পরীক্ষার প্রয়োজনে তাকে নেওয়া হয় বলে জানা গেছে। এ ছাড়া তার উপস্থিতিতে আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও শনাক্ত করার কথাও রয়েছে। এসব বিষয়ে জানতে তদন্ত কর্মকর্তা ও বনানী থানার ওসিকে মোবাইল ফোনে কল করে এবং এসএমএস পাঠিয়ে সাড়া মেলেনি।
ধর্ষণে অভিযুক্ত ইভানকে বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার মাসদাইর বাজার এলাকার ২৬০/২ পশ্চিম দেওভোগ থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, বুধবার সকালে পুলিশের অভিযানের সময় সে বাসাতেই ছিল।
মঙ্গলবার রাতে জন্মদিনের অনুষ্ঠানের কথা বলে ওই তরুণীকে বনানীর দুই নম্বর সড়কের ৫/এ নম্বর ভবন ন্যাম ভিলেজের ভাড়া বাসায় নিয়ে ধর্ষণ করে ইভান। পরে রাত সাড়ে ৩টার দিকে তাকে বাসা থেকে বের করে দেওয়া হয়। বুধবার ভুক্তভোগী বনানী থানায় মামলা করেন। বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার শারীরিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়।