'এই দল নিয়ে বিশ্বকাপ জেতা যায় না'

প্রকাশ: ২৪ জুন ২০১৪      

স্পোর্টস ডেস্ক

জার্মানির কাছে প্রথম ম্যাচে ৪-০ গোলে হারার পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে জয়টা ছিল তাদের জন্য অবশ্য প্রয়োজনীয়। কিন্তু মার্কিনিদের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো পর্তুগিজদের। অবশ্য সেটিও তারা পেয়েছে ভাগ্যগুণে। ইনজুরি টাইমে সিলভেস্টর ভারেলা গোল না করলে তাদের হয়তো পরাজয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে হতো। তাতে দ্বিতীয় পর্ব থেকেও অগ্রিম বিদায় নিয়ে নিতে হতো। এখন অবশ্য কাগজে-কলমে টিকে আছে পর্তুগালের নকআউট পর্বে যাওয়ার সম্ভাবনা। তবে তার জন্য ঘানাকে হারাতে হবে বিশাল ব্যবধানে। দলের এ অবস্থায় কী ভাবছেন এবারের ব্যালন ডি'অর জয়ী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো? মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ম্যাচের পর সংবাদমাধ্যমকে বেশ খোলাখুলিই জানালেন দল নিয়ে তার ভাবনার কথা। বললেন, 'আমরা দল হিসেবে আসলে গড়পড়তা মানের। যদি বলি যে আমরা একটি বিশ্বমানের দল, তবে তা মিথ্যা বলা হবে। আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতা আছে। এ ছাড়া আমাদের কিছু খেলোয়াড় ইনজুরিতে আক্রান্ত, আবার কেউবা কিছু ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হয়ে আছে। এগুলো দল হিসেবে আমাদের ক্ষতিগ্রস্ত করছে এবং আমাদের শক্তি কমিয়ে দিচ্ছে।'
এরপর সরাসরিই বলে দিলেন, 'আমাদের ক্ষমতা আসলে খুবই সীমাবদ্ধ। আর আমরা নিজেদের সেরা ফর্মেও নেই। এখানে এমন কোনো জাদুর কাঠি নেই, যা আমাদের সাহায্য করবে বা রাতারাতি বদলে দেবে। সুতরাং কেউ যদি মনে করে এই দল নিয়ে আমরা বড় বড় দলকে হারাব, তবে সেটি ভুল ভাবনা। আমরা ফেভারিট নই এবং কখনও ছিলামও না।' এর পরের কথাগুলো বলার সময় তার কণ্ঠে যেন একটা হাহাকার ধ্বনিত হলো। হতাশ কণ্ঠে বললেন, 'আমি কখনোই ভাবিনি যে, আমরা বিশ্বকাপ জিততে পারব। আমাদের নিজেদের মান সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে এবং অবশ্যই বিনয়ী হতে হবে। আমি ভণ্ড নই। আর তাই কখনও এই টুর্নামেন্ট জেতার আশাও করিনি।'
২৯ বছর বয়সী এই বিশ্বসেরা ফরোয়ার্ড এরপর মুখ খুললেন তার বহুল আলোচিত চোট নিয়ে। বিশ্বকাপের আগে শেষ হওয়া ক্লাব ফুটবল মৌসুম থেকেই তাকে ভোগাচ্ছে হাঁটুর এই চোট। তবে তা নিয়েও মাঠে নামছেন রোনালদো। মার্কিনিদের বিপক্ষে শেষ মুহূর্তের গোলটাও করিয়েছেন তিনিই। এ ব্যাপারে তার মন্তব্য, 'ইনজুরি দিয়ে আমি নিজেকে মূল্যায়ন করতে চাই না। সেতুর নিচে পানি থাকবেই। সুতরাং খেলোয়াড়দের ইনজুরি মেনেই খেলতে হবে এবং আমি খেলছি। লড়াই করছি মাঠে। আমি সবসময় দলের জন্য আমার সর্বোচ্চটাই দিতে চাই। সুতরাং এ নিয়ে এত কথার কোনো প্রয়োজন দেখি না। প্রতিদিনই পত্রপত্রিকায় আমার ইনজুরি নিয়ে নানা নিত্যনতুন সংবাদ পাওয়া যায়। কিন্তু তা নিয়ে আমার কোনো মাথাব্যথা নেই। আমি এখানে এসেছি শুধু জাতীয় দলকে সাহায্য করার জন্য।' আর নিজের খেলা নিয়ে রোনালদোর মত, 'যেভাবে আমার খেলা উচিত বলে মনে করি, সেভাবে আমি পারছি না।'
পর্তুগাল নকআউট পর্বে যেতে পারলে তা হবে ফুটবল রূপকথা। আর তা না হলে হয়তো ট্র্যাজিক হিরোই থেকে যেতে হবে বিশ্বের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে।