আইএসের নতুন 'জিহাদি জন' সিদ্ধার্থ ধর?

প্রকাশ: ০৬ জানুয়ারি ২০১৬      

সমকাল ডেস্ক

ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিগোষ্ঠীর নুতন প্রপাগান্ডা প্রধান ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক সিদ্ধার্থ ধর। সম্প্রতি ব্রিটেনের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনে পাঁচজন ব্যক্তিকে হত্যা করে আইএস। সেই ভিডিওতে সিদ্ধার্থ ধরকে দেখা গেছে। তবে স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড এ বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।
এখনও বিষয়টি নিশ্চিত করেনি কর্তৃপক্ষ। ব্রিটিশ গোয়েন্দা সূত্র বিবিসিকে জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি সিদ্ধার্থ ধর বলেই তারা ধারণা করছেন। ব্রিটেনের একটি হিন্দু পরিবারে জন্ম নেওয়া ৩২ বছরের সিদ্ধার্থ পরে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। ভারতীয় বাঙালি হিন্দু যুবকের আইএস-যোগ এবং একটি বছর দশেকের শিশুকে ওই ভিডিওতে দেখানোয় ঘুম হারাম ব্রিটিশ প্রশাসনের। খাঁটি ব্রিটিশ উচ্চারণে সিদ্ধার্থ এবং ওই শিশু প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনকেও হুমকি দিয়েছে। এমনকি তাকে 'বোকা', 'হোয়াইট হাউসের চাকর', 'খচ্চর' বলে ব্যঙ্গ করা হয়েছে। সিদ্ধার্থ আইএসের খেলাফতের পক্ষে একটি ৪৬ পৃষ্ঠার ই-বুকও প্রকাশ করেছে।
সিরিয়ায় যাওয়ার আগে তার বিরুদ্ধে ব্রিটেনের বিভিন্ন মসজিদের সামনে উগ্র বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এর আগে আইএসের প্রপাগান্ডা ভিডিওতে 'জিহাদি জন' নামের একজনকে দেখা যেত, যার আসল নাম মোহাম্মদ এমওয়াজি। তিনিও ছিলেন একজন ব্রিটিশ নাগরিক। সিরিয়ার রাকায় মার্কিন ড্রোন হামলায় তিনি নিহত হন। সিদ্ধার্থ পূর্ব লন্ডনে বসবাস করতেন। ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর উগ্রপন্থি গোষ্ঠী আল মুহাজিরুনে যোগ দেন। তার এখনকার নাম আবু রুমায়শা। সাবেক ব্যবসায়ী এবং চার সন্তানের জনক সিদ্ধার্থকে সন্ত্রাসে মদদ দেওয়ার অভিযোগে ২০১৪ সালে গ্রেফতার করা হয়েছিল। জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর তিনি সিরিয়ায় গিয়ে আইএসে যোগ দেন বলে ধারণা গোয়েন্দাদের। তার বোন কণিকা ধর বিবিসিকে জানান, প্রথমবার শুনে তার মনে হয়েছিল, এটা তার ভাইয়ের কণ্ঠস্বর। তখন তিনি খুবই মর্মাহত হন। যদিও তিনি পুরোপুরি নিশ্চিত নন, সে সত্যিই তার ভাই কি-না।