অন্যরকম সৌদি রাজকন্যা

প্রকাশ: ২০ জুলাই ২০১৬      

সমকাল ডেস্ক

আমিরা। সৌদি রাজকন্যা। আইদান বিন নায়েফ আল তাবিলের মেয়ে। রূপে যদি আদর করে লক্ষ্মী বলা যায়, তাহলে গুণে তাকে সরস্বতীর সঙ্গেই তুলনা করতে হবে। সম্প্রতি তিনি বলেন, জঙ্গিরা 'আল্লাহু আকবর' শব্দের অপব্যবহার করছে।
বয়স মাত্র ৩৩। এরই মধ্যে নানা গুণপনার কারণে দেশ-বিদেশে সাড়া জাগিয়েছেন তিনি। প্রবল মনের জোর, অদমনীয় সাহস আর তীব্র ইচ্ছাশক্তির জোরে মানবাধিকার নিয়ে লড়াই করছেন। শুধু সৌদি আরবেই নয়, সারা বিশ্বে মানবাধিকারের স্বার্থে লড়াই করতে তিনি সদা তৎপর। বঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে এর মধ্যে ৭০টি দেশে গিয়েছেন। সমাধান করে ফেলেছেন মানবাধিকার সংক্রান্ত বেশ কিছু সমস্যারও।
দরিদ্র ও দুর্গতদের জন্য লড়াই করা আমিরার স্বভাব। বিশ্বের বেশ কয়েকটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তার নিবিড় সম্পর্ক। পশ্চিম আফ্রিকার দুর্যোগপীড়িতদের জন্য ত্রাণশিবির, পাকিস্তানের বন্যাকবলিত অঞ্চলের বাসিন্দাদের সাহায্য, কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ইসলামী শিক্ষাকেন্দ্র গড়ে তোলা বা সোমালিয়ায় দুর্গতদের সেবায় ত্রাণ উদ্যোগ_ সর্বত্র সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে প্রস্তুত রাজকন্যা। গোঁড়ামির বিরুদ্ধেও তার প্রতিবাদ সুবিদিত। সৌদি আরবের নারীদের পরিধেয় চিরাচরিত ঢিলেঢালা পোশাক 'আবায়াস'-এর বিরুদ্ধে প্রথম যে কয়েকজন নারী প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছিলেন, আমিরা তাদের অন্যতম। পাশ্চাত্যের পোশাকই তার বরাবরের পছন্দ। তবে তাতেও প্রতীচ্যের শৈল্পিক ছোঁয়া দেখা যায়। সন্ত্রাস ও হিংসার ঘেরাটোপে থাকা দুনিয়ায় রূপ-গুণ এবং মধুর স্বভাবে সত্যিই অনন্য রাজকন্যা আমিরা। টাইমস অব ইন্ডিয়া ও গালফ নিউজ।