ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি

ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার পড়ার সুযোগ

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৬      

ফারজানা আক্তার

কালের বিবর্তনে মানুষের চিন্তা-চেতনারও পরিবর্তন হয়েছে। নতুন নতুন সংযোজন আর বিয়োজনের মাধ্যমে মানুষ সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে পরিবর্তন আর পরিবর্ধন করেছে অনেক কিছু। তেমনি অফিস, বাসস্থান কিংবা বিভিন্ন স্থাপনায় ওহঃবৎরড়ৎ এবং ঊীঃবৎরড়ৎ ডিজাইনের ক্ষেত্রে এসেছে আমূল পরিবর্তন। প্রতিনিয়তই বাড়ছে মানুষ। আর এই বিপুলসংখ্যক মানুষের অন্যতম মৌলিক চাহিদা হলো বাসস্থান। মানুষের এই অন্যতম মৌলিক চাহিদা মেটানোর ক্ষেত্রে আর্কিটেক্টরা বিভিন্ন প্ল্যানিং এবং ডিজাইনের মাধ্যমে স্বল্পপরিসরের মধ্যে অধিক সুবিধা এবং প্রতি ইঞ্চি জায়গার সঠিক ব্যবহারে অসামান্য ভূমিকা পালন করে থাকেন। অপার সম্ভাবনার কথা মাথায় রেখে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার বিষয়টির ওপর উচ্চশিক্ষা কার্যক্রম চালু করেছে। আর্কিটেকচার খাতকে প্রাতিষ্ঠানিক, তত্ত্বীয় ও ব্যবহারিক জ্ঞানধারী উচ্চমানের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী মেধা সরবরাহের গুরুদায়িত্ব কাঁধে নিয়ে এগিয়ে আসার এ কাজটি সফলতার সঙ্গে শুরু করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (ডিআইইউ)। স্প্রিং সেমিস্টার ২০১৪ থেকে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি আর্কিটেকচারের ওপর পাঁচ বছর মেয়াদি শিক্ষা ব্যবস্থার আওতায় ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার ডিগ্রি কার্যক্রম চালু করেছে। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার বিষয়টি অন্তর্ভুক্তি প্রসঙ্গে ডিআইইউ ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান সবুর খান বলেন, 'ক্রমবর্ধমান চাহিদার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাড়ছে আর্কিটেকচারাল কোম্পানির সংখ্যা। এ সেক্টরটিতে বিষয়ভিত্তিক জ্ঞানধারী লোকবলের ব্যাপক চাহিদা সত্ত্বেও জোগান নেই। এটা আর্কিটেকচার খাতের বিজ্ঞানসম্মতভাবে এগিয়ে যাওয়ার অন্তরায়। দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর স্বার্থে বিষয়ভিত্তিক লোকবল সরবরাহের ব্রত নিয়ে ডিআইইউতে আর্কিটেকচারে পড়াশোনা করে উজ্জ্বল ক্যারিয়ার তৈরির সুযোগ বিদ্যমান।' ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে শুরু হওয়া পাঁচ বছর মেয়াদি ১৯৪ ক্রেডিটের ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার বিষয়ে থাকছে ডিজাইন স্টুডিও, কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন, ম্যাথমেটিক্স ফর আর্কিটেক্ট, ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ স্কিল ডেভেলপমেন্ট, ডকুমেন্টেশন, গ্রাফিক্স অ্যান্ড ফ্রি হ্যান্ড ড্রইং, বিল্ডিং ফিজিক্স, ডিজাইন থিওরি, ইকোলজি, আর্ট অ্যাপ্রিসিয়েশন, মিউজিক অ্যাপ্রিসিয়েশন, ডিজাইন অ্যাপ্রিসিয়েশন, ডিজিটাল কমিউনিকেশন স্কিল, আর্কিটেকচার অব এনসিয়েন্ট সিভিলাইজেশন, বিল্ডিং অ্যান্ড ফিনিশ মেটেরিয়ালস, ফিজিওলজি, লজিক, আরগোনমিক্স অ্যান্ড অ্যাবস্ট্রাক্ট ফর্ম, ফটোগ্রাফি অ্যান্ড গ্রাফিক্স রি-প্রডাকশন, কনস্ট্রাকশন ডিটেইলস, ক্লাইমেট রেসপনসিভ আর্কিটেকচার, অ্যাসথেটিক্স, সার্ভে মেথডস, ইন্টেরিয়র ডিজাইন, ফটোগ্রাফি, কনস্ট্রাকশন মেটেরিয়ালস অ্যান্ড সিস্টেমসসহ সর্বমোট ৫৮টি বিষয়। এই বিভাগে ভর্তি হওয়ার জন্য একজন শিক্ষার্থীকে এসএসসি ও এইচএসসিতে কমপক্ষে সিজিপিএ-৩ অথবা দ্বিতীয় বিভাগে উত্তীর্ণ হতে হবে এবং অবশ্যই বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী হতে হবে। ভালো জিপিএ ধারীসহ ভর্তি হওয়ার পর ডিপার্টমেন্টের প্রতি সেমিস্টারে ভালো রেজাল্ট অর্জনকারী মেধাবীদের বিভিন্ন পর্যায়ের বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে। এ ছাড়াও গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেও ডিআইইউ বিশেষ ছাড় দিয়ে থাকে।
বিস্তারিত জানতে ফোন:৯১৩৮২৩৪-৫, ০১৭১৩৪৯৩০৫০-১, ০১৮৪৭১৪০০৪৫। ওয়েবসাইট :www.daffodilvarsity.edu.bd