শিক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নিও। আজকের পাঠশালায় তোমাদের জন্য পরীক্ষার প্রস্তুতির সুবিধার্থে বাংলা থেকে আলোচনা করা হচ্ছে। প্রথমে নিজেরা চেষ্টা করবে, পরে সঠিক উত্তরের সঙ্গে মিলিয়ে নেবে। পাঠশালায় প্রকাশিত সংখ্যাগুলো সংগ্রহে রাখবে।

(গত আলোচনার পর থেকে)

ব্যাকরণ অংশ

ব্যাকরণ


৯। অল্পপ্রাণ ধ্বনি কাকে বলে?

উত্তর : ব্যঞ্জন ধ্বনি উচ্চারণের সময় ফুসফুসে চালিত বাতাসের চাপের স্বল্পতা হলে অর্থাৎ যে ধ্বনি উচ্চারণের সময় নিঃশ্বাস জোরে সংযোজিত হয় না তাকে অল্পপ্রাণ ধ্বনি বলে। যেমন- ক, গ ইত্যাদি। (বর্গের ১ম ও ৩য় বর্ণ)

১০। মহাপ্রাণ ধ্বনি কাকে বলে?

উত্তর : ব্যঞ্জন ধ্বনি উচ্চারণের সময় ফুসফুসচালিত বাতাসের চাপের আধিক্যকে মহাপ্রাণ ধ্বনি বলে। যেমন- খ, ঘ ইত্যাদি।

১১। অন্তঃস্থ ধ্বনি কাকে বলে?

উত্তর : স্পর্শ ও উষ্ফ্ম ধ্বনির অন্তরে অর্থাৎ মাঝে আছে বলে য, র, ল, ব এ ধ্বনিগুলোকে অন্তঃস্থ ধ্বনি বলে। আর এই বর্ণগুলোকে বলা হয় অন্তঃস্থ বর্ণ।

১২। বর্ণ কাকে বলে?

উত্তর : ধ্বনিকে প্রকাশ করতে আমরা যে সাংকেতিক চিহ্ন ব্যবহার করি তাকে বর্ণ বলে। বাংলা ভাষায় মোট বর্ণের সংখ্যা ৫০টি। এদের একত্রে বর্ণমালা বলে।

১৩। কণ্ঠ বর্ণ কোনগুলো?

উত্তর : ক, খ, গ, ঘ, ঙ।

১৪। তালব্য বর্ণ কোনগুলো?

উত্তর : চ, ছ, জ, ঝ, ঞ।

১৫। মূর্ধন্য বর্ণ কোনগুলো?

উত্তর : ট, ঠ, ড, ঢ, ণ।

১৬। দন্ত্য বর্ণ কোনগুলো?

উত্তর : ত, থ, দ, ধ, ন।

১৭। ওষ্ঠ্য বর্ণ কোনগুলো?

উত্তর : প, ফ, ব, ভ, ম।

১৮। নাসিক্য বর্ণ কোনগুলো?

উত্তর : ঙ, ঞ, ণ, ন, ম। (বর্গের ৫ম বর্ণ)

১৯। শব্দের ক্ষুদ্রতম অংশকে কী বলে?

উত্তর : ধ্বনি।

২০। স্বরবর্ণের সংক্ষিপ্ত রূপকে কী বলে?

উত্তর : কার।

২১। ব্যঞ্জনবর্ণের সংক্ষিপ্ত রূপকে কী বলে?

উত্তর : ফলা।

২২। ভাষার ক্ষুদ্রতম অংশকে কী বলে?

উত্তর : ধ্বনি।

২৩। উষ্ফ্ম বর্ণ কোনগুলো?

উত্তর : শ, ষ, স, হ।

২৪। য-এর উচ্চারণ স্থানগত অবস্থান কি?

উত্তর : তালব্য।

২৫। র-এর উচ্চারণ স্থানগত নাম কী?

উত্তর : কম্পনজাত ধ্বনি।

২৬। কোন বর্ণ উচ্চারণে বায়ুর প্রাধান্য থাকে?

উত্তর : উষ্ফ্ম বর্ণ।

২৭। বর্গের কত নম্বর বর্ণটি নাসিক্য হয়?

উত্তর : পঞ্চমটি।

২৮। তাড়নজাত ধ্বনি কোনগুলো?

উত্তর : ড়, ঢ়।

২৯। বাংলা বর্ণমালায় মাত্রাহীন বর্ণ কয়টি?

উত্তর : ১০টি।

৩০। বাংলা বর্ণমালায় অর্ধমাত্রা বর্ণ কয়টি?

উত্তর : ৮টি।

[ বাকি অংশ প্রকাশিত হবে আগামীকাল ]

মন্তব্য করুন