জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষার পড়াশোনা

বিজ্ঞান

প্রকাশ: ০৫ জুলাই ২০১৯

মো. মাসুদ খান

প্রধান শিক্ষক

ডেমরা পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ

ডেমরা, ঢাকা



প্রিয় শিক্ষার্থীরা, আজ তোমাদের জন্য থাকছে অধ্যায় ১ থেকে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নোত্তর, যা তোমাদের জ্ঞানমূলক ও বহুনির্বাচনী প্রশ্নের উত্তর প্রদানে সহায়ক হবে।





(গত আলোচনার পর)



অনুধাবনমূলক প্রশ্ন





এ বিভাজনে ক্রোমোজমের সংখ্যা অর্ধেক হ্রাস পায় বলে মিয়োসিসকে হ্রাসমূলক বিভাজন বলা হয়।

৪। মিয়োসিস প্রয়োজন কেন?

উত্তর : প্রজাতির স্বকীয়তা রক্ষার জন্য মিয়োসিস বিভাজন প্রয়োজন। মিয়োসিস প্রক্রিয়ায় জননকোষ সৃষ্টি হয় এবং কোষে ক্রোমোজমের সংখ্যা ধ্রুব থাকে। এ ছাড়া জীবজগতে বৈচিত্র্য সৃষ্টির জন্য মিয়োসিস প্রয়োজন। ডিপ্লয়েড জীবে মিয়োসিস প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই গ্যামেট সৃষ্টি হয়। আর গ্যামেটের মিলনের মাধ্যমে যৌন প্রক্রিয়ায় বংশবৃদ্ধি ঘটে।

৫। বহুকোষী জীবের দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পায় কেন?

উত্তর : বহুকোষী জীবের ভাজক টিস্যুর কোষগুলো মাইটোসিস প্রক্রিয়ায় বিভাজিত হয়ে একই আকৃতি ও গুণসম্পন্ন অপত্য কোষ সৃষ্টি করে থাকে। মাইটোসিস কোষ বিভাজনের কারণেই বহুকোষী জীব দৈর্ঘ্যে বৃদ্ধি পায়।

৬। মেন্ডেলকে জিনতত্ত্বের জনক বলা হয় কেন?

উত্তর : মেন্ডেল ১৮২২ সালে অস্ট্রিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন।

ঊনবিংশ শতাব্দীর দ্বিতীয়ার্ধে প্রথম যিনি বংশগতির ধারা সম্পর্কে সঠিক ধারণা দেন, তার নাম গ্রেগর জোহান মেন্ডেল। বর্তমানে বংশগতি সম্পর্কে আধুনিক যে তত্ত্ব প্রচলিত আছে তা মেন্ডেলের আবিস্কার তত্ত্বের ওপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এ জন্য মেন্ডেলকে জিনতত্ত্বের জনক বলা হয়।

৭। জিন বলতে কী বোঝায়?

উত্তর : জীবের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য নিয়ন্ত্রণকারী একককে জিন বলে। উঘঅ হলো ক্রোমোজমে অবস্থিত জিনের রাসায়নিক রূপ। মানুষের চোখের রঙ, চুলের প্রকৃতি, চামড়ার রঙ ইত্যাদি সবই জিন কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত। ক্রোমোজম জিনকে এক বংশ থেকে পরবর্তী বংশে বহন করার জন্য বাহক হিসেবে কাজ করে বংশগতির ধারা অক্ষুণ্ণ রাখে।

৮। ক্রোমোজমকে বংশগতির ভৌত ভিত্তি বলা হয় কেন?

উত্তর : বংশগতির প্রধান উপাদান হচ্ছে ক্রোমোজম। ক্রোমোজম বংশগতির ধারা অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য কোষ বিভাজনের সময় জিনকে সরাসরি মা-বাবা থেকে বহন করে পরবর্তী বংশধরে নিয়ে যায়। এ কারণে ক্রোমোজমকে বংশগতির ভৌত ভিত্তি বলা হয়।



বহুনির্বাচনী প্রশ্ন

১। কোষ বিভাজন কত প্রকার?

ক) ২ খ) ৩ গ) ৪ ঘ) ৫

২। প্রত্যক্ষ কোষ বিভাজন ঘটে কোথায়?

ক) ইস্ট খ) কাণ্ড

গ) ভ্রূণমূলে ঘ) জনন মাতৃকোষে

৩। কোনটি বিভাজনে নিউক্লিয়াস ডাম্বেল আকার ধারণ করে?

ক) ভ্রূণমূল খ) ছত্রাক

গ) মুকুল ঘ) কাণ্ড

৪। কোনটিতে মাইটোসিস কোষ বিভাজন ঘটে?

ক) ব্যাকটেরিয়া খ) ছত্রাক

গ) ইস্ট ঘ) শামুক

৫। স্তন্যপায়ী প্রাণীদের কোষ বিভাজন কোন প্রক্রিয়ায় হয়ে থাকে?

ক) অ্যামাইটোসিস খ) মাইটোসিস

গ) মিয়োসিস ঘ) সাইটোকাইনেসিস

৬। মাইটোসিস কোষ বিভাজনে-

র. নিউক্লিয়াস দু'বার বিভাজিত হয়

রর. অপত্য কোষের ক্রোমোজম সংখ্যা মাতৃকোষের সমান হয়

ররর. ১টি মাতৃকোষ থেকে ৪টি অপত্য কোষের সৃষ্টি হয়

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) র খ) রর গ) র ও রর ঘ) র ও ররর

৭। মাইটোসিস কোষ বিভাজন-

র. আমের মুকুলে দেখা যায়

রর. উদ্ভিদের অযৌন জননের সময় ঘটে

ররর. প্রাণীর স্নায়ু টিস্যুর স্নায়ু কোষে ঘটে

নিচের কোনটি সঠিক?

ক) র ও রর খ) র ও রররগ) রর ও ররর ঘ) র, রর ও ররর

[ বাকি অংশ প্রকাশিত হবে আগামীকাল ]