আজ তোমাদের বাংলা থেকে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন নিয়ে আলোচনা করা হলো। প্রথমে নিজেরা চেষ্টা করবে।

এক কথায় উত্তর

১। উপন্যাস কী?

উত্তর : সুনির্দিষ্ট আয়তনের গদ্য কাহিনি।

২। 'ওহ ঝবধৎপয ড়ভ খড়ংঃ ঞরসব' উপন্যাসটি কার লেখা?

উত্তর :মার্সেল প্রুস্ত্‌।

৩। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় উপন্যাসের শব্দ সংখ্যা কত?

উত্তর :১২ লাখের মতো।

৪। লেভ তলস্তয়ের 'ওয়ার অ্যান্ড পিস'-এর শব্দ সংখ্যা কত?

উত্তর :পাঁচ লাখ সাতাশি হাজারের মতো।

৫। ইতালির বিখ্যাত নন্দনতাত্ত্বিক ঔপন্যাসিকের নাম কী?

উত্তর :উমবার্তো একো।

৬। কে সাত শব্দের এক বাক্যে রচিত একটি লেখাকে পৃথিবীর ক্ষুদ্রতম উপন্যাস বলে দাবি করেছেন?

উত্তর :উমবার্তো একো।

৭। উপন্যাস শব্দটির সংস্কৃত ব্যুৎপত্তি কীরূপ?

উত্তর :উপ+নি+অস+অ = উপন্যাস।

৮। উপন্যাস কোন কালের সৃষ্টি?

উত্তর :আধুনিক কালের।

৯। জীবনের সমগ্রতা সাহিত্যের কোন শাখায় প্রতিফলিত হয়?

উত্তর :উপন্যাসে।

১০। সাধারণভাবে উপন্যাস কয়টি উপাদানের ভিত্তিতে গড়ে উঠেছে?

উত্তর :ছয়টি।

১১। উপন্যাসের প্রধান উপাদান কী?

উত্তর :কাহিনি বা গল্প।

১২। কোন উপন্যাসে গল্পের তেমন প্রাধান্য থাকে না?

উত্তর :নিরীক্ষাধর্মী উপন্যাসে।

১৩। উপন্যাসে উপস্থাপিত কাহিনিকে কী বলা হয়?

উত্তর :আখ্যানভাগ (চষড়ঃ)।

১৪। উপন্যাসের দ্বিতীয় উপাদান কী?

উত্তর :চরিত্র।

১৫। উপন্যাসের তৃতীয় উপাদান কী?

উত্তর :দৃশ্য/পরিবেশ।

১৬। উপন্যাসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান কী?

উত্তর :ভাষা।

১৭। উপন্যাসের লেখকের বলা কথাটিকে কী বলা হয়?

উত্তর :জীবনদর্শন/জীবন ভাবনা।

১৮। রবীন্দ্রনাথের পরে বাঙালির গৃহকাতরতা ও আবহমান পারিবারিক আবেগের ওপর ভর করে কে উপন্যাস লিখেছেন?

উত্তর :শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।

১৯। শ্রেণিকরণ করলে বাংলাদেশের উপন্যাসকে কয়টি ভাগে ভাগ করা যায়?

উত্তর :৬টি।

২০। সেলিনা হোসেনের আঞ্চলিক ও বিশেষ জীবনধারার উপন্যাসের নাম কী?

উত্তর :পোকামাকড়ের ঘরবসতি।

২১। 'হাঙ্গর নদী গ্রেনেড' সেলিনা হোসেনের কী ধরনের উপন্যাস?

উত্তর :ঐতিহাসিক ও মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক।

[বাকি অংশ প্রকাশিত হবে আগামীকাল]

বিষয় : পড়াশোনা

মন্তব্য করুন