ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. মফিজুল ইসলাম পাটোয়ারীর একক প্রচেষ্টায় ১৯৯৫ সালে দেশের অন্যতম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে ইউনিভার্সিটির ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে সাত হাজার। এর মধ্যে পাঁচ শতাধিক বিদেশি ছাত্রছাত্রী রয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক কোষাধ্যক্ষ এবং ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের উপদেষ্টা অধ্যাপক সেলিম ভূঁইয়া এই প্রোগ্রাম প্রসঙ্গে বলেন, 'যুগোপযোগী বিবিএ ও এমবিএ প্রোগ্রামের সিলেবাস প্রণয়ন ও শিক্ষাদানের ফলে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা উন্নত শিক্ষালাভ করতে সক্ষম হচ্ছে। ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের প্রতিটি কর্মকাণ্ড পরিচালিত হচ্ছে সুপরিকল্পিত, সুশৃঙ্খল, তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক দৃষ্টিকোণ থেকে। এর ফলে শিক্ষার্থীরা চাকরি প্রতিযোগিতার বাজারে স্থান করে নিতে পারছে। এ ইউনিভার্সিটিতে ট্রাইমিস্টার পদ্ধতিতে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয়। প্রতিটি সেমিস্টারে ছাত্রছাত্রীদের মিডটার্ম ও ফাইনাল পরীক্ষার জন্য কোর্স শিক্ষকরা পর্যাপ্ত কেস স্টাডি, চলমান বিষয়ের ওপর অ্যাসাইনমেন্ট, বাধ্যতামূলক ক্লাস পার্টিসিপেশন, কম্পিউটার ও ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি জানান, এখানে কোর্স ফি অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে কম হলেও আমরা উন্নত মানের শিক্ষাদান করে আসছি। এ ছাড়া নিয়মিত ওয়ার্কশপ, সেমিনার, সিম্পোজিয়ামে ছাত্রছাত্রীরা অংশগ্রহণ করে থাকে। প্রতি বছর বিবিএ ও এমবিএ ফাইনাল সেমিস্টারে শিক্ষার্থীদের স্টাডি ট্যুর এবং বিভিন্ন সেমিস্টারে শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্ডাস্ট্রিয়াল ভিজিটের ব্যবস্থা করা হয়। দিবা শাখার জন্য কোর্স ফি দুই লাখ ৮০ হাজার ৫০০ টাকা। পাশাপাশি চাকরিজীবী এবং বিএমএ ডিপ্লোমা পাসকৃত শিক্ষার্থীদের জন্য সান্ধ্যকালীন শিফট চালু রয়েছে। তাদের কোর্স ফি দুই লাখ ৪৩ হাজার ৩০০ টাকা। দুই বছরের এমবিএ এক বছরের কোর্স ফি এক লাখ ২০ হাজার টাকা। এক বছরের এমবিএর কোর্স ফি এক লাখ টাকা। বোর্ড অব ট্রাস্টিজের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এস. কাদির পাটোয়ারী বলেন, ১৯৯৫ সালে 'জ্ঞানই শক্তি' স্লোগান সামনে রেখে এ ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস বাড্ডার সাঁতারকূলে স্থাপন করা হয়েছে। সেখানে সবুজে ঘেরা ও সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশে তিনটি নান্দনিক ভবন রয়েছে। এ ছাড়া নির্মাণাধীন রয়েছে ১০ তলাবিশিষ্ট টাওয়ার।

যোগাযোগ :স্থায়ী ক্যাম্পাস, সাঁতারকূল, বাড্ডা। ৬৬, গ্রিন রোড, ঢাকা। ফোন :০১৯৩৯৮৫১০৬০, ০১৬১১৩৪৮৩৪৪-৮। www.diu.ac

মন্তব্য করুন