৮০০ কিলোমিটার সড়কে সাড়ে তিন লাখ গাড়ি!

প্রকাশ: ১৯ জানুয়ারি ২০১৪      

তৌফিকুল ইসলাম বাবর

৬০ বর্গকিলোমিটারের চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচল করছে প্রায় সোয়া এক লাখেরও বেশি মোটরযান! এটা বৈধ মোটরযানের সংখ্যা। অবৈধভাবে চলাচলকারী গাড়িসহ হিসাব করলে এ সংখ্যা আরও অনেক বাড়বে। মোটরযানের বাইরেও নগরে রিকশা চলাচল করছে দুই লাখের মতো। সবমিলিয়ে প্রায় সাড়ে তিন লাখ যানবাহন চলাচল করছে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে। তারওপর রেজিস্ট্রেশন নিয়ে প্রতিদিনই ৩৫ থেকে ৪০টি করে বিভিন্ন ধরনের মোটরযান রাস্তায় নামায় যানজট ক্রমশ ভয়াবহ হয়ে উঠছে।
অন্যদিকে সাম্প্রতিক সময়ে রাস্তায় নেমছে ব্যাটারিচালিত অজস্র রিকশা। দিন দিন বাড়ছে এমন রিকশা। বাহনটি শুধুই কি প্যাডেলচালিত সাধারণ রিকশা, নাকি মোটরযান_ এ নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে রয়েছে নানা যুক্তি। তবে এগুলোর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে দেখা যায় না ট্রাফিক পুলিশকে।
নগরে চলাচল উপযোগী রাস্তার চেয়ে গাড়ির সংখ্যা অনেক বেশি বলে মনে করেন পরিবহন বিশেষজ্ঞরা। ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত গাড়ি চলাচলের কারণেই সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে হিমশিম খেতে হচ্ছে বলে তারা মনে করেন।
বিআরটিএর সর্বশেষ হিসাব মতে, ২০১৩ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বৈধভাবে চলাচল করছে এমন মোটরযানের সংখ্যা ১ লাখ ২৯ হাজার ৮৯৯। এরমধ্যে কার ১৮ হাজার ৬০৪টি, জিপ ১ হাজার ৮৫৭টি। বাস ৭৯৯টি, মিনিবাস ১০ হাজার ৫৬৭টি, ট্রাক ৪ হাজার ২১০টি, কাভার্ড ভ্যান ৬৫৮টি, ডেলিভারি ভ্যান ৫৫৮টি, মোটরসাইকেল ৫০ হাজার ৩০৪টি, আটোটেম্পো ও বিভিন্ন ধরনের হিউম্যান হলার ২ হাজার ৩৩৪টি এবং পিকআপ ২ হাজার ৭৪২টি। এছাড়া জেলা ও নগর মিলে অটোরিকশা চলাচল করছে ৩৩ হাজার ৭৮৪টি। এর বাইরে অন্যান্য জেলা থেকেও প্রতিদিন ১০ হাজার থেকে ১২ হাজার গাড়ি নগরের সড়কে চলাচল করে।
বিআরটিএ চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক রফিকুল ইসলাম সমকালকে বলেন, 'চট্টগ্রাম শহরে কমবেশি সোয়া লাখ বৈধ মোটরযান চলাচল করছে। এছাড়া প্রতিদিন ৩৫ থেকে ৪০টি পর্যন্ত মোটরযান রেজিস্ট্রেশন নিয়ে রাস্তায় নামছে। রাস্তায় নামা নতুন গাড়ির মধ্যে গণপরিবহনের সংখ্যা একেবারে কম।'
চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের এক তথ্যমতে, বিপুলসংখ্যক গাড়ি চলাচলের জন্য ৬০ বর্গকিলোমিটারের নগরে ছোট-বড় এবং কাঁচা-পাকা মিলিয়ে সড়ক রয়েছে ৮শ' কিলোমিটারের কিছু বেশি। এরমধ্যে পাথরের কার্পেটিং করা সড়কের সংখ্যা ৫১৭টি, ব্রিক সলিং সড়ক ৬৭৮টি এবং কাঁচা রাস্তার সংখ্যা ৫৯৬টি।