সদ্যগঠিত কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ইউনিয়নে দীর্ঘ ১৮ বছর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন কর্ণফুলী থানা আওয়ামী লীগের অ্যাডহক কমিটির সদস্য আবুল কালাম বকুল। গত ২৮ মে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিপুল ভোটের ব্যবধানে আবুল কালাম বকুলকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন নতুন কর্ণফুলী থানা আওয়ামী লীগের অ্যাডহক কমিটির আরেক সদস্য জাহাঙ্গীর আলম। জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ২৮ মে জনগণ যে ব্যালট বিপ্লব ঘটিয়েছেন তার জন্য আমি এই ইউনিয়নের বাসিন্দাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আমাদের এলাকায় গ্যাসের সাব-স্টেশন থাকা সত্ত্বেও আমরা গ্যাস সংযোগ থেকে বঞ্চিত। কিন্তু আমাদের থেকে দক্ষিণে ও পশ্চিমের ইউনিয়নে গ্যাস রয়েছে। সেখানে গ্যাস সুবিধা থাকায় উন্নয়ন, শিক্ষা, কর্মসংস্থান, কল-কারখানা ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় অগ্রগতি ও উন্নয়ন হয়েছে। যদি আমরা সবাই উদ্যোগী হই, দৃষ্টিভঙ্গি প্রসারিত করি, ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে আগাই তাহলে একটি আলোকিত ও মডেল ইউনিয়ন বিনির্মাণ সম্ভব। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেও নেতৃত্বে থাকবে জনগণ, আমি তাদের সাথে থাকতে চাই। আমি এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানতে চাই, শুনতে চাই, শিখতে চাই, জানাতে চাই ও দেখাতে চাই আমরা যে পরিবর্তনের স্বপ্ন দেখি। স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার

মাধ্যমে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অনুন্নত সড়ক, কাঁচা রাস্তা সিসি, ঢালাই এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজতর করার জন্য নতুন-নতুন সড়ক নির্মাণ করা হবে। জলাবদ্ধতা নিরসনে স্থানীয় ও বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ সাপেক্ষে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। মাদক ও সামাজিক অনাচার, মদ, জুয়া প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হবে। অসামাজিক কর্মকাণ্ড বন্ধে ওয়ার্ডভিত্তিক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি গঠন করা হবে। রাতের বেলায় চলাফেরার সুবিধার্তে প্রতিটি সড়কে বিদ্যুৎ আলোকায়ন করা হবে।
জাহাঙ্গীর আলমের নির্বাচন পরিচালানা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ইমতিয়াজ উদ্দিন জানান, এক মাস আগে কর্ণফুলীর জনগণ ত্রিমুখী প্রশাসনের জাঁতাকল থেকে মুক্তি পেেেছ, পৃথক কর্ণফুলী উপজেলা গঠিত হয়েছে। শিকলবাহার মানুষের মুক্তির জন্য নতুন নেতৃত্ব সৃষ্ঠির লক্ষ্যে জাহাঙ্গীর আলমের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেছি। অবহেলিত শিকলবাহার চেহারা এবার বদলে যাবে।

মন্তব্য করুন