কস্ফণনের অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, 'নজরুলের মানবতার সুর ও স্বর শিল্পীদের ধারণ করতে হবে। কারণ নজরুলের সৃষ্টিতে মানবপ্রীতি এবং মানুষের মেলবন্ধনের কথা বারবার ধ্বনিত হয়েছে।' গত বৃহস্পতিবার বিকেলে কস্ফণন শুদ্ধতম আবৃত্তি অঙ্গন আয়োজিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জয়ন্তী উপলক্ষে 'আজ কেবলি নজরুল' শীর্ষক অনুষ্ঠানে বক্তারা এ অভিমত ব্যক্ত করেন। কস্ফণন সভাপতি আবৃত্তি শিল্পী মোসতাক খন্দকারের সভাপতিত্বে থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রামের গ্যালারি হলে এ আয়োজনে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নজরুল সঙ্গীত শিল্পী, নজরুল একাডেমির সভাপতি ফরিদা করিম ও বাচিক শিল্পী ও প্রশিক্ষক অরুণ ভদ্র। স্বাগত বক্তব্য রাখেন রুম্মান মাহমুদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আবৃত্তি শিল্পী তৃষা সেন ও তাহমিনা গণি। জাতীয় কবিকে নিবেদিত কথামালা, গান এবং তাঁর রচনার আবৃত্তি নিয়ে আয়োজিত 'আজ কেবলি নজরুল' শীর্ষক এই অনুষ্ঠানে নজরুলের রচনাসম্ভার থেকে একক আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তি শিল্পী রুম্মান মাহমুদ, সৌভিক চৌধুরী, শুক্লা ভট্টাচার্য, তৃষা সেন, কামরুল, তৃষা নাহিদা, শরীফ, তানিম, সায়িফ, আফনান, পূজয়িতা, সাইমুম, তাবাস্সুম, আজলিন, মিতা গাঙ্গুলী, মার্টিনা সরকার, রুমানা জাহিদ অরুণ ভদ্র। নজরুলসঙ্গীত পরিবেশন করেন ফরিদা করিম, লোকমান চৌধুরী রাশেদ ও তৃঞ্চা সেন। তবলায় সঙ্গত করেন সাঈদুল হক।

মন্তব্য করুন