নগরী থেকে অপহৃত শিশু চন্দনাইশে উদ্ধার

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০১৮      

দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানার নতুন ব্রিজ এলাকায় ব্যাংক এশিয়ার পাশে ফজুর কলোনি থেকে অপহৃত হওয়া এক শিশুকে চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী পৌরসভাধীন হাছনদণ্ডি এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে স্থানীয় জনগণ। উদ্ধার হওয়া শিশুটি হচ্ছে ফজুর কলোনি এলাকার বাসিন্দা আকতার হোসেনের স্ত্রীর প্রথম স্বামীর সন্তান শাহিদুল ইসলাম সাকিব (৮)।

কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলা বাইশারী এলাকার বড়বিল গ্রামের এ দম্পতি গত কয়েক বছর ধরে ফজুর কলোনিতে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছিল। গত ২ জুলাই বিকেলে সাকিবকে অপহরণ করে দুর্বৃত্তরা। যাদের মধ্যে একজন মহিলা। গ্রেফতার হওয়া অপহরণকারীরা হলো ব্রাম্মণবাড়িয়ার আখাউড়া আহমদাবাদ এলাকার মৃত নুরু মিয়ার পুত্র আবদুল আজিজ (৪৯) ও চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার উত্তর কালিয়াইশ গ্রামের মৃত আবদুস ছবুরের কন্যা মনজুরা বেগম (৩৮)।

পুলিশ জানায় ধৃত দুই অপহরণকারী চট্টগ্রামের ফজুর কলোনী এলাকা থেকে সোমবার বিকেলে চিপস কিনে দেওয়ার লোভ দেখিয়ে সাকিবকে গাড়িতে তুলে নিয়ে অপহরণ করে। রাতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ শুরু হলে তারা চন্দনাইশের দেওয়ানহাট এলাকায় গাড়ি থেকে নেমে হাছনদণ্ডি গ্রামে ঢুকে পড়ে। পরে বৃষ্টির মাত্রা বেড়ে গেলে তারা স্থানীয় একটি মাদরাসায় আশ্রয় নেয়। এ সময় তাদের সাথে থাকা শিশুটি উচ্চস্বরে কাদঁতে থাকে।

জনতার জিজ্ঞাসাবাদের মুখে এক সময় শিশুটি ফেলে রেখে কৌশলে তারা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশকে খবর দিয়ে জনগণ তাদের ধাওয়া করে।

পরে চন্দনাইশ থানার এস আই আলমাস হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে দোহাজারী এলাকার একটি কলোনির গলির ভেতর থেকে লুকিয়ে থাকা অবস্থায় দুই অপহরণকারীকে গ্রেফতার করে। চন্দনাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুলাহ আল মামুন ভুইয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন ধৃতদের বিরুদ্ধে শিশু অপহরণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করে তাদের আদালতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।