প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠানে ড. মোহীত উল আলম ইতিহাস মৃত মানুষের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ করে দেয়

প্রকাশ: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

নগরীর জিইসি মোড়স্থ প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ভবনে ইংরেজি বিভাগের ৩৩তম ব্যাচের ২য় অর্ধবর্ষের কোর্সের পাঠ্য কার্যক্রমের অংশ হিসেবে 'ফিনিক্স, এ টাইমস এনেকডোট' নামক একটি গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার বেলা ১১টায় গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহীত উল আলম। ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক রেজওয়ানা চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে প্রকাশিত গ্রন্থটিতে শিক্ষার্থীদের ৩১টি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা ৩১টি দলে ভাগ হয়ে প্রবন্ধগুলো রচনা করেন। একটি যাযাবর জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে পরবর্তীতে কীভাবে ইংরেজরা ঔপনিবেশিক শক্তিতে পরিণত হলো, তা ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরার উদ্দেশ্যে শিক্ষার্থীরা ব্রিটেনে বিভিন্ন রাজার শাসন, বিভিন্ন রাজবংশ, সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা, ইংল্যান্ডের পার্লামেন্ট ব্যবস্থা, ধর্ম, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব প্রভৃতি তুলে ধরেছেন প্রবন্ধগুলোতে।

গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করে ড. মোহীত উল আলম বলেন, 'এমন একটি গ্রন্থ প্রকাশের জন্য ইংরেজি বিভাগ সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। ইতিহাস আমাদের মৃত মানুষের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ করে দেয়। রাজা-রানী তথা শাসকশ্রেণির ইতিহাস জানার পাশাপাশি শোষিত ও নিরীহদের ইতিহাস জানাও জরুরি।'

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান সাদাত জামান খান, সহকারী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, সৈয়দ জসিম উদ্দীন, মো. সোলায়মান চৌধুরী, গাজী শাহাদাত হোসেন, চৌধুরী রুনা ও প্রভাষক সৈয়দা সালমা আক্তার ও জয়নাব তাবাস্‌সুম বানু প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি