চুয়েটে আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে শিক্ষা উপমন্ত্রী

আগামী দিনের বাংলাদেশ হবে ডিজিটাল অর্থনীতিনির্ভর

প্রকাশ: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, 'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার জনসংখ্যাকে জনসম্পদে রূপান্তরের লক্ষ্যে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে। দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির জন্য সরকার যুগান্তকারী নানা উদ্যোগও গ্রহণ করেছে। আমরা ইতিমধ্যেই এসব উদ্যোগের সুফলও দেখতে পাচ্ছি। জিডিপি বৃদ্ধি, অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশের সম্ভাবনাসহ অনেক বৈশ্বিক সূচকে আমরা এগিয়ে গিয়েছি। আগামী দিনের বাংলাদেশ হবে জ্ঞানভিত্তিক ডিজিটাল অর্থনীতির। এমন প্রেক্ষাপটে চুয়েটের এ আন্তর্জাতিক কনফারেন্স আয়োজন অত্যন্ত প্রশংসাযোগ্য।

তিনি বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল (ইসিই) অনুষদের 'ÔInternational Conference on Electrical, Computer and Communication Engineering (ECCE 2019)’
শীর্ষক আন্তর্জাতিক কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। পর্যটন নগরী কক্সবাজারে দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে তিনদিনব্যাপী এই কনফারেন্স। এতে সভাপতিত্ব করেন কনফারেন্স অর্গানাইজিং কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কোশিক দেব।

বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কনফারেন্স সেক্রেটারি অধ্যাপক ড. রুবাইয়াৎ তানভীর হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী, এমপি আরও বলেন, বর্তমান সরকার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবান্ধব। প্রধানমন্ত্রীর পরিবারই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অগ্রগতিতে নানাভাবে সম্পৃক্ত। প্রধানমন্ত্রীর স্বামী ড. ওয়াজেদ মিয়া ছিলেন প্রখ্যাত পরমাণু বিজ্ঞানী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন 'ডিজিটাল বাংলাদেশ' ধারণার প্রবক্তা এবং এটির সফল বাস্তবায়নে নেতৃত্ব প্রদানকারী।

অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, 'প্রধানমন্ত্রীর শক্তিশালী নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নত দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশের মিশনে আছে। এখানে প্রকৌশলীদের ভূমিকা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ ধরনের কনফারেন্স বর্তমান সময়ের জন্য বিশেষভাবে গুরুত্ববহ। কারণ সারাবিশ্বে তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল বিষয়ে নানা যুগান্তকারী আবিস্কার ও উদ্ভাবন হচ্ছে। এ খাতে আমাদের দেশেও নানা অগ্রগতি এসেছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ড. রকি বৈদ্য ও সিএসই বিভাগের প্রভাষক ফারজানা ইয়াসমিন।

এবারের কনফারেন্সে বাংলাদেশ এবং বিভিন্ন দেশ থেকে ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক, কম্পিউটার সায়েন্স, টেলিকমিউনিকেশন প্রভৃতি বিষয়ে শীর্ষস্থানীয় একাডেমিশিয়ান, সায়িন্টিস্ট, রিসার্চার, স্কলারস, ডিসিশন মেকার্সরা অংশ নিচ্ছেন। বিজ্ঞপ্তি