পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক সন্দ্বীপ উপজেলার বিচ্ছিন্ন ইউনিয়ন উড়িরচরকে ক্রসড্যাম কিংবা সড়কবাঁধের মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে মূল ভূখণ্ড নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জসহ পাশের জাহাইজ্জার চর (স্বর্ণদ্বীপ) ও উপজেলা সদর সন্দ্বীপের সঙ্গে সংযুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন।

গত ১৫ নভেম্বর সকালে প্রতিমন্ত্রীর উড়িরচর আগমন উপলক্ষে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনসমূহের উদ্যোগে আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এ ঘোষণা বলেন।

এর আগে তিনি সন্দ্বীপ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমান মিতাকে সঙ্গে করে হেলিকপ্টারে উড়িরচরে পৌঁছেন। পরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারাসহ স্পিডবোটে উড়িরচরে ভাঙনকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৫ সালের জলোচ্ছ্বাসের পর গত ৩৫ বছরে উড়িরচরে কোনো মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর এই সফর প্রথম।

উড়িরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে ও সোহেল রানার সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমান মিতা। মিতা তার বক্তব্যে বিচ্ছিন্ন উড়িরচরের ভাঙন বন্ধে উদ্যোগ নেওয়ার দাবি জানান।

প্রধান অতিথি পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে উড়িরচরের ভাঙন প্রতিরোধে উদ্যোগ নিতে একটি সমীক্ষা কমিটি সন্দ্বীপের ভাঙনকবলিত এলাকায় পাঠানো হবে। তাদের প্রদত্ত রিপোর্ট অনুযায়ী উড়িরচরের ভাঙন বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সন্দ্বীপে ইসলামী আন্দোলনের সমাবেশ

সন্দ্বীপে 'শাহ আহমদ শফী ও মাওলানা সৈয়দ ফজলুল করীমের জীবন ও কর্ম' শীর্ষক এক আলোচনা সভা বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়। খন্তারহাটের উপজেলা আইএবি মিলনায়তনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, সন্দ্বীপ উপজেলা শাখা আয়োজিত এ সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় ওলামা-মাশায়েখ আইন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ড. আ ফ ম খালেদ হোসাইন।

প্রধান অতিথি বলেন, ব্যক্তির অপরাধের জন্য তার সম্প্রদায় দায়ী নয়। সে হিন্দু হোক আর মুসলমান হোক। যার যার ধর্ম সে সে পালন করবে, এটা মদিনা সনদেও উল্লেখ আছে। সৌভ্রাতৃত্বের বন্ধনে সব ইসলামী শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

মাওলানা ছানাউল্ল্যাহর সঞ্চালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, সন্দ্বীপ উপজেলা শাখার সভাপতি হযরত মাওলানা মাঈনুদ্দীন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় ওলামা-মাশায়াখ কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সভাপতি হযরত মাওলানা মনসুরুল হক জিহাদী ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ মোরশেদুল আলম। আলোচনায় অংশ নেন মাওলানা শিহাবুদ্দিন, মাওলানা হাফেজ আহমদ, মাওলানা মুফতি আবুল কাশেম, মো. মাঈনুদ্দিন, মাওলানা আবু বকর সিদ্দিক, মাওলানা সুলতানুল ইসলাম ভূঁইয়া প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সন্দ্বীপ উপজেলা শাখার সভাপতি হযরত মাওলানা মাঈনুদ্দিন। পরে মুফতি আবুল কাশেমকে সভাপতি ও মাওলানা মাহফুজুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে জাতীয় ওলামা-মাশায়েখ আঈম্মা পরিষদের ৩১ সদস্যবিশিষ্ট সন্দ্বীপ উপজেলা শাখা কমিটি ঘোষণা করা হয়।

মন্তব্য করুন