রাউজানের ডাবুয়া খাল থেকে ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে হুমকির মুখে পড়েছে কয়েকটি সেতু। ডাবুয়া খালের বৃক্ষভানুপুর থেকে পৌর এলাকার জানালী হাট পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী অবৈধভাবে বালু তুলছে। ডাবুয়া হাছানখীল এলাকার ডাবুয়া সেতুর গোড়ায় বসানো হয়েছে বালু উত্তোলনের ড্রেজার মেশিন। অতিরিক্ত খনন করে বালু উত্তোলনের ফলে ঝুঁকির মুখে পড়েছে সেতুটি।

স্থানীয়দের অভিযোগ ইউপি সদস্য নাজিম উদ্দিন ও জসিম উদ্দিন নামে দুই ব্যক্তি যৌথভাবে অবৈধ বালু উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত। স্থানীয় জহুর উদ্দিন ও বেলাল উদ্দিন অভিযোগ করেছেন নির্বিচারে বালু উত্তোলনের ফলে তার এক একর ফসলি জমি খালের ভাঙনে পড়েছে। মোহাম্মদ খালেদ নামে একজন অভিযোগ করেন, তার জমির ওপর জোরপূর্বক বালুমহাল সৃষ্টি করা হয়েছে। তার দাবি, বালু উত্তোলনের কারণে দীর্ঘদিন ধরে তার জমিতে ফসল উৎপাদন করা যাচ্ছে না। একইভাবে বৃক্ষভানুপুর, বাঁচা মিয়ার দোকান, চিকদাইর সন্দ্বীপ পাড়া ও জানালীহাট সংলগ্ন ডাবুয়া খাল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে দুবৃর্ত্তরা।

অবৈধ বালু উত্তোলন প্রসঙ্গে রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, 'ডাবুয়া খালে কোনো বালুমহালের ইজারা নেই। তবে আমি শুনেছি কিছু লোক অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। অবৈধ বালু উত্তোলনে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। শিগগির অভিযান পরিচালনা করা হবে।'

মন্তব্য করুন