চট্টগ্রাম চক্ষু হাসপাতাল ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের (সিইআইটিসি) ইনস্টিটিউট অব কমিউনিটি অফথালমোলজি নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। ১৯ নভেম্বর সকাল ১০টায় পাহাড়তলির ক্যাম্পাসে ভবনটির অনুষ্ঠানিকভাবে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন আন্তর্জাতিক চক্ষু বিশেষজ্ঞ, চট্টগ্রাম চক্ষু হাসপাতালের ম্যানেজিং ট্রাস্টি ও ইম্পেরিয়াল হাসপাতালের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. রবিউল হোসেন।

অধ্যাপক ডা. রবিউল হোসেন বলেন, 'গ্রামগঞ্জে মাঠপর্যায়ে চক্ষু চিকিৎসাসেবা ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে এমনকি রোগীদের চক্ষু চিকিৎসার মাধ্যমে তাদের অন্ধত্ব নিবারণ করা ও তাদের দৃষ্টিশক্তি ফিরিয়ে দিতে ১৯৭৩ সালে অতি ক্ষুদ্র পরিসরে গ্রামমুখী চক্ষু চিকিৎসা শিবিরের মাধ্যমে চট্টগ্রাম চক্ষু হাসপাতালের যাত্রা শুরু হয়। পরে সারাদেশে ধীরে ধীরে এর প্রসার লাভ করে। ফলে প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রায় ৫০ লাখ মানুষের চোখের চিকিৎসা সফলভাবে সম্পন্ন করে অনন্য প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে সিইআইটিসি। প্রতিবছর গড়ে চার লাখ রোগীকে সেবা দিচ্ছে এ প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলে চক্ষু চিকিৎসাকে উন্নত পর্যায়ে নেওয়ার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় জনবল, প্যারামেডিক, অপটোমেট্টি, চিকিৎসকদের উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে লাখ লাখ রোগীকে চিকিৎসাসেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে।' তিনি আরও বলেন, 'আমাদের প্রচেষ্টাকে আরও উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যেতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ), চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে সমঝোতার মাধ্যমে চট্টগ্রাম চক্ষু হাসপাতালে উন্নতমানের মাঠপর্যায়ের প্রশিক্ষণ গ্রহণের সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে। এই ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে গ্রামমুখী চক্ষু চিকিৎসাসেবা আরও এক ধাপ এগিয়ে যাবে।'

এ সময় উপস্থিত ছিলেন হাসপাতালের ট্রেজারার জাহাঙ্গীর আলম খান, ইমপেরিয়ালের প্রজেক্ট ম্যানেজার মুহিবুল ইসলাম, সিইআইটিসির মেডিকেল ডিরেক্টর ডা. কামরুল ইসলাম, সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. রাজীব হোসেন, এক্সিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার একেএমএ খালেদ, ডেপুটি ম্যানেজার মো. রোকনুন চৌধুরী, সহকারী ম্যানেজার মো. সাজিউল ইসলাম প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

মন্তব্য করুন