সাক্ষাৎকার : কল্যাণী ঘোষ

'নয়নে নয়নে রাখিব' চট্টগ্রামেরই গান

প্রকাশ: ২২ নভেম্বর ২০২০

শাহ আলম সরকার রচিত এবং কণা ও ইমরানের গাওয়া 'ওহে শ্যাম তোমারে আমি নয়নে নয়নে রাখিব/অন্য কারে না আমি চাইতে দেব' গানটি যে চট্টগ্রামের মাইজভাণ্ডারী ঘরানার গান 'নয়নে নয়ন রাখিব'র বিকৃতি সেটা জোর দিয়েই বললেন চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের রানী হিসাবে খ্যাত শিল্পী কল্যাণী ঘোষ। তিনি বলেন, 'প্রতি বাংলা মাসের ২২ তারিখ মাইজভাণ্ডারে বৈঠক হতো। সেখানেই জিকিরের সুরে সুরে মুখে মুখে 'নয়নে নয়নে রাখিব' গানটিও গাওয়া হতো। প্রায় ১১ জন লোকের একজন সোনামিয়ার বাবা, বজল মুন্সিসহ আরও অনেকজন মিলেই মুখে মুখে গানটি রচনা করেন। গানটি যেহেতু একজনের লেখা না তাই গীতিকারের নাম দেওয়া হয়নি। পরবর্তীতে মরমি শিল্পী সেলিম নিজামী প্রায় ২০ বছর আগে গানটি রেকর্ড করেছেন এবং তারও আগে থেকে গানটি মাইজভাণ্ডারের বিভিন্ন মাহফিলে গাওয়া হতো।

কল্যাণী ঘোষ বলেন, 'জোরালো প্রমাণ হিসেবে উল্লেখ করা, যা নয় বছর আগে ২০১১ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর 'অজস্রধারা সুর' নামের এক ইউটিউব চ্যানেলে 'নয়নে নয়ন রাখিব' গানটি প্রকাশিত হয়েছে। মরমি শিল্পী সেলিম নিজামীর কণ্ঠে গাওয়া গানটিও ইউটিউবে প্রকাশিত হয় ২০১৭ সালের ২৯ আগস্ট। এমনকি 'নয়নে নয়ন রাখিব' গানটি ভারতীয় গায়িকা ইমন চক্রবর্তীও গেয়েছেন; যা ইউটিউবসহ বিভিন্ন চ্যানেলে লোকগান হিসেবে প্রকাশিত।

শিল্পী কল্যাণী ঘোষ আরও বলেন, 'আমাদের চট্টগ্রামে এরকম জনপ্রিয় গানগুলোর কথা বিকৃতি করে নিজেদের বলে দাবি করা খুবই দুঃখজনক ঘটনা।' প্রতিবাদ কেন হয় না এমন প্রসঙ্গে বলেন, 'আমরা সবাই শিল্পী। প্রতিবাদ কার বিরুদ্ধে কে করবে? মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আবদুল গফুর হালী দাদা বলেছেন আমাকে প্রতিবাদ করতে, কিন্তু আমি তো প্রতিবাদ করতে পারছি না, কারণ গানের স্বত্ব আমার না। তবে এটা তো আমাদেরই গান, চট্টগ্রামেরই গান। এটার এমন বিকৃতি হওয়া উচিত না। ধরেন, আমার সন্তানকে লালন-পালন করে বড় করলাম অথচ সে মা ডাকবে অন্য কাউকে তাহলে কেমন হবে? আমাদের এ গানের কথাগুলো কত সুন্দর। তারা কেন সেসব পরিবর্তন করে গাইবে?