বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত বলেছেন, 'একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি এই দেশে মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখা থেকে শুরু করে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তোলা, মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে আন্দোলন-সবকিছুতে সোচ্ছার। দেশের মূল আদর্শের বিরুদ্ধে পান থেকে চুন খসলেও সেটি নির্মূল কমিটির নজর এড়ায় না। তারা এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। নির্মূল কমিটি আরও একটি বড় কাজ করেছিল। সেটি হচ্ছে, কবি সুফিয়া কামালের নেতৃত্বে গণতদন্ত কমিশন তৈরি করে দুটি অসাধারণ রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল। এ ছাড়া হেফাজতের তাণ্ডব, মৌলবাদী সাম্প্র্রদায়িক সন্ত্রাসের ওপর হাজার হাজার পৃষ্ঠায় শ্বেতপত্র প্রকাশ করেছে। শুধু আবেগীয় কথায় নির্মূল কমিটির আগ্রহ নেই, তারা তথ্য-প্রমাণ হাজির করে দেয়।'

গত ১৯ জানুয়ারি একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূূল কমিটির ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলার উদ্যোগে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, 'মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আন্দোলনের তিন দশক : চট্টগ্রামের ভূমিকা' শীর্ষক আলোচনা এবং শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত এসব কথা বলেন।

প্রধান বক্তা লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি বলেন, 'যত দিন না বাংলাদেশ একটি অসাম্পদায়িক ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করবে, তত দিন নির্মূল কমিটির আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের অসাম্প্রদায়িক ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার আন্দোলন সফল করতে তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে হবে।'

নগরীর চেরাগী পাহাড়স্থ সুপ্রভাত স্টুডিও হলে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধ গবেষক ডা. মাহফুজুর রহমান, নারী নেত্রী জেসমিন সুলতানা পারু। প্রধান বক্তা ছিলেন সংগঠনের অষ্টম জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব ও কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি।

সংগঠনের জেলা সহসভাপতি দীপঙ্কর চৌধুরী কাজলের সভাপতিত্বে ও কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক মো. অলিদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন সংগঠনের জেলা সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মইনুদ্দিন, মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, জেলা নেতা হাবিব উলল্গাহ চৌধুরী ভাস্কর, একেএম জাবেদুল আলম সুমন, আবু সাদাত মো. সায়েম প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

মন্তব্য করুন