শিক্ষক-শিক্ষার্থী অনুপাতে আন্তর্জাতিক মান বজায় থাকায় তারুণ্যমুখর বিদ্যাপীঠ চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির (সিআইইউর) শিক্ষা কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। সর্বশেষ ইউজিসির ৪৬তম বার্ষিক প্রতিবেদনে সিআইইউর পাঠদান পদ্ধতি, গুণগত শিক্ষা ও ক্যাম্পাসের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিয়ে এ সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। নতুন বছরের শুরুতে গত ১৫ জানুয়ারি এ বিষয়ে ইউজিসির প্রতিবেদন ও তালিকা গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

একটি মডেল বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ইতোমধ্যে দেশে ও দেশের বাইরে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি। বর্তমানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির উপাচার্য পদে দায়িত্ব পালন করছেন দেশবরেণ্য শিক্ষাবিদ ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী। পড়ালেখার পাশাপাশি সৃষ্টিশীল নানা কর্মকাণ্ডেও সাফল্য বয়ে আনছেন এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ইউজিসির ৪৬তম বার্ষিক প্রতিবেদনে চট্টগ্রামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সিআইইউর বিষয়ে বলা হয়েছে, উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আন্তর্জাতিক মান অনুযায়ী প্রতি ২০ জন শিক্ষার্থীর জন্য একজন করে শিক্ষক থাকতে হয়, যা চট্টগ্রামের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সিআইইউ এই অনুপাত বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে। প্রতিবেদনে মানদণ্ড বজায় রাখতে ৪৪টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ব্যর্থ হয়েছে বলেও তুলে ধরা হয়।

জানতে চাইলে সিআইইউর উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী মানসম্পন্ন শিক্ষা ছড়িয়ে দেওয়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রতিষ্ঠানটি নিরলস কাজ করে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, 'গবেষণা কার্যক্রম বৃদ্ধি করার পাশাপাশি শিক্ষার মানোন্নয়নে অধিক নজর রয়েছে আমাদের। নিয়ম-শৃঙ্খলা, বিধিবিধান, সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে আমাদের প্রতিষ্ঠান এগিয়ে চলেছে।' বর্তমানে সিআইইউতে বিজনেস স্টু্কল, স্টু্কল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, স্টু্কল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস ও স্টু্কল অব ল' প্রোগ্রামের অধীনে রয়েছে একাধিক বিষয়। রয়েছে ইনস্টিটিউট অব গভর্নেন্স, ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিস (আইজিডিআইএস), ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি), সেন্টার ফর এপিলেন্স ইন টিচিং অ্যান্ড লার্নিং (সিইটিএল), সিআইইউ জার্নালসহ একাধিক ইনস্টিটিউট ও উচ্চমানের কমিটি।

মন্তব্য করুন