লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে খাসেরহাট বাজার থেকে মোল্লারহাট পর্যন্ত ১ কোটি ৮৩ লাখ টাকা ব্যয়ে বেড়িবাঁধ সড়ক সংস্কারে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ৪ হাজার ৩০০ মিটার দৈর্ঘ্যের ও ১২ ফুট প্রস্থের গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে মেরামত করা হচ্ছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন।

জানা যায়, প্রায় ২০ বছর পর বেড়িবাঁধ সড়ক সংস্কার করা হচ্ছে। গত ২৯ ডিসেম্বর টেন্ডারের মাধ্যমে ১ কোটি ৮৩ লাখ টাকা ব্যয়ে সড়কটি সংস্কারের কাজ পায় ঢাকার হাইড্রো ট্রেড নামের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। ২৮ এপ্রিলের মধ্যে সংস্কারকাজ সম্পন্ন করার কথা। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ওই প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ঠিকাদার মানিক পাটোয়ারী সংস্কারকাজ শুরু করেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, কার্যাদেশ পাওয়ার পর থেকে নিম্নমানের পাথর ও বিটুমিনের ব্যবহার ও ৬ ইঞ্চি মেকাডমের পরিবর্তে ৩ ইঞ্চি দিয়ে ৪০ মিলিমিটার কার্পেটিং করা হচ্ছে। স্থানীয় জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ঠিকাদার মানিক পাটোয়ারী কাজটি দেখাশোনা করছেন।

গত ৬ এপ্রিল দক্ষিণ-চরবংশী ইউপির চরকাছিয়া গ্রামবাসীর অভিযোগের কারণে সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়ে অনিয়মের সত্যতা পান বলে জানান স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শাহ আলম পাটওয়ারী। তিনি সংস্কারকাজ সাময়িক বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন। তবে ঠিকাদার দু'দিন কাজ বন্ধ রেখে পুনরায় নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে কাজ করছেন বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে ঠিকাদার মানিক পাটোয়ারী বলেন, 'বেড়িবাঁধ সড়কটি চরম বেহাল ছিল কয়েক বছর। কেউ কাজ করেনি। আমরা মানসম্মত কাজ করছি, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ সঠিক নয়। আমি উন্নতমানের পাথর ব্যবহার করেছি, কাজে অনিয়মের কোনো সুযোগ নেই।'

এলজিইডির লক্ষ্মীপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ আলম পাটওয়ারী বলেন, 'অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কিছু অনিয়ম পেয়েছি। ঠিকাদারকে দিয়েই তা সংশোধনের চেষ্টা করেছি। এ জন্য ঠিকাদারকে জরিমানা করা হবে।'

মন্তব্য করুন