আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে লোহাগাড়া উপজেলার ৬ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছেন ৩২ জন সম্ভাব্য প্রার্থী। গত সোমবার দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দীন আহমদ এমপির সামনে তাদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়। এ সময় মনোনয়নপ্রত্যাশীরা অঙ্গীকার ও শপথ করেন, কোনো কারণে দলীয় মনোনয়ন না পেলেও তারা নৌকার বিরুদ্ধে প্রার্থী হবেন না, নৌকাকে বিজয়ী করতে সর্বাত্মকভাবে কাজ করবেন। এ সময় মনোনয়নপ্রত্যাশীদের বক্তব্যের ভিডিও ধারণ করা হয়।\হআসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী নির্ধারণে সোমবার বর্ধিত সভা করে লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ। গত সোমবার বিকেলে স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন। লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন হিরুর সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দীন আহমদ এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুহাম্মাদ ইদ্রিছ, আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মির্জা কচির উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জহির উদ্দিন, সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এম.এ মোতালেব সিআইপি, দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীমা হারুন লুবনা, কার্যনির্বাহী সদস্য ওমর ফারুক ও জেলা পরিষদ সদস্য আনোয়ার কামাল।\হএতে বক্তব্য রাখেন- লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জান মোহাম্মদ সিকদার, নুরুচ্ছাফা চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হাসান মিন্টু, মুজিবুর রহমান মুজিব, সম্পাদক শাহজাদা তৈয়বুল হক বেদার, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, যুব ক্রীড়া সম্পাদক মুজাহিদ বিন কাইছার ও উপ-সম্পাদক এমএস মামুন প্রমুখ।

উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন- বড়হাতিয়া ইউনিয়নে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক বিজয় কুমার বড়ুয়া, বড়হাতিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাজেদুর রহমান চৌধুরী দুলাল ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য রফিকুল ইসলাম।\হপুঁটিবিলা ইউনিয়নে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন- ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন মানিক ও যুবলীগ নেতা আ স ম দিদারুল আলম।\হকলাউজান ইউনিয়নে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন- বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শ্রীনিবাস দাশ সাগর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাশেম মিয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য এসএম আব্দুল জব্বার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজী ইছহাক মিয়া, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মোহাম্মদ এয়াছিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বঙ্গবন্ধু শিশুকিশোর মেলা'র সিনিয়র সহ-সভাপতি মাসুদ করিম, আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আমিন ও আওয়ামী লীগ নেতা মাওলানা আব্দুল সবুর।

চরম্বা ইউনিয়নে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন- বর্তমান চেয়ারম্যান ও চরম্বা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসহাব উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সাইফুল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা মুছা কোম্পানী ও চরম্বা ইউনিয়ন তাঁতী লীগের সভাপতি মাওলানা হেলাল উদ্দিন।

চুনতি ইউনিয়নে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন- বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য জয়নুল আবেদীন জনু, উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি আনিস উল্লাহ, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক ফজলে এলাহী আরজু ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক সাজ্জাদ হোসাইন মিনহাজ।

পদুয়া ইউনিয়নে মনোনয়নপ্রত্যাশীরা হলেন- লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য নুরুল হক কন্ট্রাক্টর, উপজেলা তাঁতী লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সহ-সভাপতি আকতার কামাল পারভেজ, উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হারুনুর রশিদ, আকতার হোসেন ফরিদ, আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য লিটু দাশ বাবলু, উপজেলা তাঁতী লীগের সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম ও আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল আবছার।

মন্তব্য করুন