সাইবার অপরাধের প্রতিকারে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করার আহ্বান

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ব্যবহারকারীরা যে কোনো ধরনের সাইবার অপরাধের শিকার হলে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করতে পারে। কমিউনিটি সেফটি অ্যাওয়ারনেস শীর্ষক দু'দিনব্যাপী কর্মশালায় এ আহ্বান জানানো হয়।

গত সোমবার ডিএমপির কেন্দ্রীয় নির্দেশনা এবং নিয়ন্ত্রণ ভবনে অবস্থিত ৯৯৯'র কনফারেন্স রুমে ক্রাইম রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস ফাউন্ডেশনের (ক্রাফ) সহযোগিতায় কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়। ৯৯৯-এর দায়িত্বরত এসপি তবারক উল্লাহর সভাপতিত্বে দু'দিনব্যাপী এ কর্মশালায় ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপ এবং পেজের অ্যাডমিন, অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট এবং বিভিন্ন ধরনের সাইবার ক্রাইমের শিকার ভুক্তভোগী এমন ৭০ জন নারী এবং পুরুষ নাগরিক উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালার মূল লক্ষ্য ছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন গ্রুপ এবং পেজের সঙ্গে জড়িত মানুষের মাঝে কিছু সতর্কবার্তা পৌঁছে দেওয়া এবং প্রান্তিক পর্যায়ে জনগোষ্ঠীর কাছে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এর সেবা সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তোলা। এতে করে সাধারণ মানুষ যেন জরুরি সেবা ৯৯৯-এর ব্যবহার এবং প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে জানতে পারে। কর্মশালায় তবারক উল্লাহ বলেন, ফেসবুক তথা সাইবার জগতের মাধ্যমে সৃষ্ট অপপ্রচার এবং গুজব যেন মানুষের মাঝে বিভ্রান্তি সৃষ্টি না করে তাই ৯৯৯-এর এ উদ্যোগ। ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপ এবং পেজ থেকে মানুষ প্রতারণাসহ নানাভাবে হ্যারাজমেন্টের শিকার হচ্ছে। এ থেকে প্রতিকার পেতে ৯৯৯ সেবা গ্রহণ করা যাবে। অনুষ্ঠানে কর্মশালায় ক্রাফের লিগ্যাল অ্যাডভাইজার সাইয়েদা ফেরদৌস আহমেদ, এক্সিকিউটিভ আইটি অ্যানালিস্ট সিয়াম বিন শওকত প্রমুখ।
 প্রযুক্তি প্রতিদিন প্রতিবেদক