তরুণদের দক্ষতা বৃদ্ধি ও কাজের সুযোগ সৃষ্টিতে 'সুযোগ প্ল্যাটফর্ম' চালু করেছে আইসশ্যাল। সম্প্রতি ভার্চুয়ালি আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্লাটফর্মটি উদ্বোধন করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। অনুষষ্ঠানে জানানো হয়, সুযোগ একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম; যা দেশের জনগোষ্ঠীকে দক্ষতা বাড়ানোর মাধ্যমেউপার্জনের সুবিধার আওতায় নিয়ে আসতে পারবে। সুযোগ নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করবে, একই সঙ্গে তাদের ডিজিটাল আর্থিক ব্যবস্থাপনায় নিয়ে আসবে।

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালে এসে সাড়ে ১১ কোটি মানুষ ইন্টারনেট সুবিধা পাচ্ছে। ফলে আইসশ্যালের কল্যাণী ও সুকর্মী বাহিনী, যারা সারাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছেন, তারা ইন্টারনেটনির্ভর সেবা ও প্রশিক্ষণ বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিতে পারছেন। আমি নিজে বিভিন্ন সময় দেখেছি কীভাবে এসব নারী উদ্যোক্তা একটি সামাজিক বিপ্লবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এবার ডিজিটাল বাংলাদেশের ভিশন হিসেবে তাদের একীভূত করার জন্য কাজ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, 'আমরা আইসিটি বিভাগ সবসময়ই অংশীদারিত্বে বিশ্বাস করি। আমরা প্রাইভেট পাবলিক ও পার্টনারশিপের ভিত্তিতে নতুন নতুন উদ্যোগ সফল করতে চাই। আমি বিশ্বাস করি আমরা সরকার, বেসরকারি খাত ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে যদি সঠিকভাবে কাজ করতে পারি, তাহলে অনেক বড় বড় উদ্যোগ সফল করতে পারব। এ সময় প্রতিমন্ত্রী আইসশ্যালের সিইও অনন্য রায়হানকে ধন্যবাদ জানান তারুণ্যের মেধা শক্তিকে কাজে লাগিয়ে নতুন কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে এ ধরনের উদ্যোগ নেওয়ার জন্য। সুযোগ প্ল্যাটফর্মের ম্যানেজিং ডিরেক্টর বিপাশা হোসেন সুযোগের বিভিন্ন সুবিধা সম্পর্কে আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিরেক্টর আফতাবুল ইসলাম, ব্যাংক এশিয়ার ম্যানেজিং ডিরেক্টর আরফান আলী, বিআইডিএসের সিনিয়র রিসার্চ ফেলো ড. নাজনীন আহমেদ এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও টিনা জাবিন।

প্রযুক্তি প্রতিদিন প্রতিবেদক

মন্তব্য করুন