তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে দেশে ভ্যাকসিন ফাইন্ডার চালু করেছে ফেসবুক। নতুন এই টুলটির মাধ্যমে বাংলাদেশিরা জানতে পারবেন কারা টিকা নিতে পারবেন। একই সঙ্গে টুলটি তাদের কাছের টিকাদান কেন্দ্র খুঁজে পেতে সাহায্য করবে। স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি, মানুষকে কভিড-সম্পর্কিত তথ্য পেতে সাহায্য করা এবং দেশে টিকাদান কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা করতে ফেসবুকের সামগ্রিক প্রকল্পের একটি অংশ এই ভ্যাকসিন ফাইন্ডার টুল। ফেসবুক নিউজ ফিডে এই টুলটি প্রয়োজনীয় তথ্যের সঙ্গে মানুষকে যুক্ত করে। কারা টিকা নিতে পারবে, কোথায় টিকা দেওয়া যাবে এবং টিকার জন্য নিবন্ধন প্রক্রিয়া কী- এসব তথ্য টুলে দেওয়া আছে। ফেসবুকের কভিড-১৯ তথ্যকেন্দ্রে ইংরেজির পাশাপাশি বাংলাতেও ভ্যাকসিন ফাইন্ডার টুলটি পাওয়া যাবে। মহামারি চলাকালীন স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে এবং মানুষকে সর্বশেষ তথ্যের সঙ্গে সংযুক্ত করতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কাজ করছে ফেসবুক। এ পর্যন্ত ১ কোটিরও বেশি বাংলাদেশি ফেসবুকের ব্লাড ডোনেশনস টুল ব্যবহার করে সাইন আপ করেছেন, যেন তারা দেশে রক্তের সংকট কমিয়ে আনার প্রচেষ্টায় ভূমিকা রাখতে পারেন।

পৃথিবীজুড়ে টিকাদান কার্যক্রমে সহায়তা এবং নিরাপদ স্বাস্থ্যবিধি পালনে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য এই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। কভিড-১৯ তথ্যকেন্দ্রের মাধ্যমে ফেসবুক বিশ্বজুড়ে ২০০ কোটিরও বেশি মানুষকে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের দেওয়া তথ্যের সঙ্গে যুক্ত করেছে। পাশাপাশি কভিড-১৯ ও অনুমোদিত টিকা সম্পর্কিত ১ কোটি ৮০ লাখেরও বেশি ভুল তথ্য সরিয়ে নিয়েছে।

মন্তব্য করুন