স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম তৈরিতে জিপি অ্যাক্সেলারেট প্রোগ্রাম জিপিএ ৩.০ উদ্বোধন করেছে গ্রামীণফোন। স্টার্টআপ, ডেভেলপার ও উদ্ভাবকদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতার মাধ্যমে তাদের উদ্ভাবন, প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিযোগিতাটির অনলাইন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান। জিপি অ্যাক্সেলারেটর প্রোগ্রামের মাধ্যমে কভিডের ফলে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে 'গ্লোবাল ফার্স্ট' বাংলাদেশি স্টার্টআপগুলোয় সহায়তায় এ বছরের শুরুতে গ্রামীণফোনের সঙ্গে দেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম তৈরিতে বেটারস্টোরিজ লিমিটেড, লাইটক্যাসেল পার্টনার্স এবং আপস্কিলের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ১২ মাসব্যাপী চলমান প্রোগ্রাম জিপি অ্যাক্সেলারেটর ৩.০ আয়োজনের মাধ্যমে দেশের সেরা স্টার্টআপ খুঁজে বের করার পাশাপাশি ইন্ডাস্ট্রির চাহিদার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নতুন উদ্যোক্তা কোম্পানির উন্নয়নে এ তিন প্রতিষ্ঠান অংশীদারিত্ব করেছে। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, জিপি অ্যাক্সেলারেটর প্রোগ্রাম ইতোমধ্যে ৪৪টি সম্ভাবনাময় স্টার্টআপে অংশগ্রহণে সফলভাবে ৬ পর্ব শেষ করেছে। গ্রামীণফোন ১৪ কোটি ২০ লাখ টাকার বেশি (৪.২ কোটির বেশি সরাসরি নগদ অর্থ সহায়তা এবং ১০ কোটির বেশি অন্যান্য সহায়তা) দিয়েছে। সেবা.এক্সওয়াইজেড, সিএমইডি হেলথ, ঢাকাকাস্ট, ক্র্যামস্ট্যাক, ডক্টরকই এবং সম্ভাবনাময় এমন আরও অনেক স্টার্টআপ জিপি অ্যাক্সেলারেটর প্রোগ্রামের মাধ্যমে সফল হয়েছে।

মন্তব্য করুন