প্রথমবারের মতো দেশে আয়োজিত 'আন্তর্জাতিক ব্লকচেইন অলিম্পিয়াড ২০২১' শীর্ষক প্রতিযোগিতায় একটি সিলভারসহ ৪টি পুরস্কার জিতেছে বাংলাদেশ। মোট ৮টি ক্যাটাগরি প্রাইজসহ থিমেটিক প্রাইজ হিসেবে ব্রোঞ্জ, সিলভার এবং গোল্ড অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয় এবারের আয়োজনে। আইডেন্টিটি অ্যান্ড প্রাইভেসি ক্যাটাগরিতে হংকং-এর 'হেল্পপ্রুফ' গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড হিসেবে ১০ হাজার ডলার পেয়ে বিজয়ী হয়। এ ছাড়া, সিলভার মেডেল অ্যাওয়ার্ড হিসেবে ফিনটেক ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশের 'হোপফুলি হাইপোথেটিক্যালি থিওরেটিক্যালি' ৭ হাজার ৫০০ ডলার এবং সাপ্লাইচেইন ক্যাটাগরিতে ভিয়েতনামের 'ভিফাচেইন' ব্রোঞ্জ মেডেল অ্যাওয়ার্ড হিসেবে ৫ হাজার ডলার পায়।

অন্যান্য ক্যাটাগরির মধ্যে ই-গভর্ন্যান্সে বাংলাদেশের রকেট, ডকুমেন্ট অথেন্টিফিকেশনে বাংলাদেশের ব্রোগ্রামারস, ফিনটেকে হংকংয়ের ফিডেলো, হেলথটেকে ভিয়েতনামের লাইফলিংক, আইডেন্টি অ্যান্ড প্রাইভেসি ক্যাটাগরিতে ভিয়েতনামের কিডক্যাট, এডুটেকে ফিলিপাইনের এডারনা, সাপ্লাইচেইন এ হংকংয়ের টুলাক্স এবং প্রোটোটাইপের ফিনটেক ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশের ডিইউ নিমবাস বিজয়ী হয়। ক্যাটাগরিভিত্তিক এ ৮টি প্রজেক্ট প্রতিটি বিজয়ী দলকে দেওয়া হয় দুই হাজার ৫০০ ডলারের পুরস্কার।

'অনুপ্রেরণামূলক ক্ষমতায়ন এবং উদ্ভাবন' স্লোগানে গত শুক্রবার শুরু হয় তিন দিনের আন্তর্জাতিক এ প্রতিযোগিতা। এর যৌথ আয়োজক ছিল আইসিটি বিভাগ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি), ব্লকচেইন অলিম্পিয়াড বাংলাদেশ ও টেকনোহেভেন। সম্প্রতি আইসিটি বিভাগের অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক ড. মো. আব্দুল মান্নান, অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ, টেকনোহেভেনের প্রতিষ্ঠাতা হাবিবুল্লাহ এন করিম উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অনলাইনে সংযুক্ত হন হংকং ব্লকচেইন সোসাইটির প্রেসিডেন্ট ড. লরেন্স মা ও ব্লকচেইন সোসাইটির ডেভিড সিজেল। বৈশ্বিক এ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ ছাড়াও চীন, হংকং, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইরান, ইন্দোনেশিয়া, নেদারল্যান্ডস, নেপাল, মঙ্গোলিয়া, শ্রীলংকার আঞ্চলিক পর্বে বিজয়ী ৫০টিরও বেশি দল চূড়ান্ত অংশ নেয়। বিজয়ীরা ৪০ হাজার ডলারেরও বেশি মূল্যের পুরস্কার অর্জন করেন।

মন্তব্য করুন