আমার মধ্যে অনেক চঞ্চলতা আছে, এটাকে বদলাতে চাই

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২০১৪      

জাভেদ ওমর বেলিম
ক্রিকেটার

সকালে ঘুম থেকে উঠেই প্রথম যে কথাটি মনে হয়_
_আল্লাহর নাম নিয়ে দিন শুরু করি। এরপর কাজের ধরন বুঝে সারাদিনের পরিকল্পনা করে নিই এবং কাজ শুরু করি।
নিজের সম্পর্কে যে বিশ্বাসটি খুব প্রবল_
_কাজের ব্যাপারে আমি ভীষণ আত্মবিশ্বাসী। যখন যে কাজ করি সেটা সম্পূর্ণ আত্মবিশ্বাস থেকে করি।
শৈশবে যে মানুষটিকে নায়ক মনে হতো_
_অমিতাভ বচ্চন, ম্যারাডোনা, ইরানের ফুটবলার এজাজি, ওয়াসিম আকরাম_ একেকজনকে একেক সময় একেক কারণে ভালো লাগত। তবে তাদের মধ্যে কেউ আমার আইডল নন।
ভালোভাবে বেঁচে থাকার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন_
_সুস্থতা, সুস্থতা এবং সুস্থতা।
যে অপ্রাপ্তিটা মাঝেমধ্যে বিষণ্ন করে_
_১৯৯৯ এবং ২০০৩ বিশ্বকাপ খেলতে পারিনি। প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে পারিনি। এগুলোর জন্য আফসোস হয়; কিন্তু বিষণ্ন করে না। কারণ এই অপ্রাপ্তিটাই আজ আমার প্রাপ্তি, আমার সাফল্য।
আমার সাফল্যের পেছনে প্রধান তিনটি কারণ_
_সঠিক নিয়মে নিষ্ঠার সঙ্গে পরিশ্রম করা এবং লেগে থাকা। আমার জীবনের সামনে চলার পথে যত বাধা পেয়েছি সবগুলোকে উদ্যম এবং শক্তি হিসেবে নিয়েছি। আর মানুষের নেতিবাচক আচরণ ও কথাগুলোতে নিশ্চুপ থেকে পথচলার শক্তি অর্জন করতে চেষ্টা করেছি।
যে উপদেশটি সবসময় মেনে চলার চেষ্টা করি_
_ছোটবেলায় মা বলতেন 'সুস্থতা হলো কোটি কোটি নিয়ামত।' কথাটা আজও আমার কানে বাজে।
যে গানটি আনমনে মাঝেমধ্যেই গেয়ে উঠি_
_তীরহারা এই ঢেউয়ের সাগর পাড়ি দেব রে ... এবং মান্না দের কফি হাউজের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই ...।
আমার যে গুণটি অনেকেই জানে না_
_এটিএন নিউজের ট্রফিক অ্যাওয়ারনেস আর অ্যাজমা ফাউন্ডেশনের সঙ্গে কাজ করছি নিয়মিত।
যে অভ্যাসটি বদলাতে চাই_
_আমার মধ্যে অনেক চঞ্চলতা আছে, এটাকে বদলাতে চাই। অবস্থা এবং জায়গা বুঝে চলা উচিত; কিন্তু আমি সব জায়গায় একরকম। আর মানুষকে তোষামোদ করে কথা বলতে পারি না।
যে স্মৃতিটা এখনও ভুলতে পারিনি_
_১৯৯৯-এর বিশ্বকাপের সময়টা আমার জন্য কষ্টের ছিল। মাকে সবসময় ভীষণ মিস করি। আমি খেলোয়াড় হয়েছি এবং এর পেছনে যার অবদান সবচেয়ে বেশি সে আমার ভাই আসিফ। ভাইয়াই আমাকে বিকেএসপিতে ভর্তি করা থেকে শুরু করে অনেক বিষয়ে সহযোগিতা করেছেন; কিন্তু ভাইয়া আজ নেই।
সারাদিনের ক্লান্তি শেষে ঘুমানোর আগে যে কথাটি মনে হয়_
_অনেক ব্যস্ততা শেষে যখন ঘুমাতে যাই মনে হয়, আজ খুব প্রশান্ত মনে ঘুমাতে পারব।