সেই ফতুল্লা! দুই বছর আগের এশিয়া কাপে আফগানিস্তান তাদের ক্রিকেট উত্থানের আওয়াজ তুলেছিল বাংলাদেশকে হারিয়ে দিয়ে। সেই ফতুল্লা, সেই এশিয়া কাপ এবার উল্লাসটা ফিরিয়ে নিল আফগানদের কাছ থেকে। টি২০ ফরম্যাটের এশিয়া কাপের প্রথম বাছাইয়ে গতকাল ফেভারিট আফগানিস্তানকে অঘটনের শিকার বানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। ১৬ রানের জয়ে মরুর দেশ চমক দেখিয়েছে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত রোহান মুস্তফার অলরাউন্ড নৈপুণ্যে।
প্রথমে ব্যাট করা আরব আমিরাত স্কোরবোর্ডে ১৭৬ রান তোলে রোহানের ৭৭ রানে ভর করে। শেষ ওভারে আফগানিস্তানের যখন ৬ বলে দরকার ২২ রান, তখনও নায়ক রোহানই। মাত্র পাঁচ রান খরচাতেই ৩ উইকেট নিয়ে ছেঁটে ফেলেন আফগানিস্তানের ইনিংস। এর দুই ওভার আগে ম্যাচে বেশ ভালোমতোই ছিল আফগানরা। ৫ উইকেট হাতে নিয়ে শেষ তিন ওভারে দরকার ছিল ৪১ রান; কিন্তু পরপর দুই বলে রানআউট আর মোহাম্মদ নাভিদের শিকার হয়ে দলকে কঠিন সমীকরণে ফেলে যান নাজিবুল্লাহ জাদরান ও করিম সাদিক। অবশ্য আফগানিস্তানকে জয়ের রাস্তায় তুলে আনেন মূলত চার নম্বরে খেলতে নামা করিম। পৌনে দুইশ' ছাড়ানো রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৯ রানেই আউট হয়ে যান দুই ওপেনার। তৃতীয় উইকেটে আসগর স্টানিকজাইকে নিয়ে বিপর্যয় কিছুটা সামাল দেওয়ার পর চতুর্থ উইকেটে ৪৭ রানের জুটি গড়েন মোহাম্মদ নবির সঙ্গে। আগের দিনই আরব আমিরাতের মাটিতে পিএসএল খেলে আসা নবি ১৮ বলে ২ ছক্কায় করেন ২৩ রান। দলীয় ১০৩ রানের মধ্যে পঞ্চম উইকেটের পতন হলেও একপাশে রানের ধারা ধরে রাখেন করিম। ৫ চার ও ১ ছক্কায় ফিফটিতে পেঁৗছান ৩৫ বলে। শেষ ১২ বলে যখন ৩৩ রান দরকার, তখনই করিম বোল্ড হয়ে যান নাভিদের বলে। ৪৮ বলে ৭২ রানের ইনিংস খেলেও করিমকে তাই মাঠ ছাড়তে হয় বিরস মুখে।
শেষ ওভারে তিন উইকেট নিয়ে আফগানদের হাসি কেড়ে নেওয়া রোহান এর আগে ব্যাট হাতেও ছিলেন ধারালো। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে মোহাম্মদ কলিমকে নিয়ে উদ্বোধনী জুটিতেই তুলে ফেলেন ৮৩ রান। কলিম ২৫ রান করে ফিরে যান রশিদ খানের লেগস্পিনে বোল্ড হয়ে। মাত্র ক'দিন আগে বাংলাদেশের মাটিতে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলা রশিদ আফগানিস্তানকে এনে দেন দ্বিতীয় উইকেটও। ১২১ রানের মাথায় শাইমন আনোয়ার ফিরে যাওয়ার পর ছোটখাটো একটা বিপর্যয়ে পড়ে আরব আমিরাত। ১২৮ রানের মধ্যেই পড়ে যায় চার উইকেট। যার মধ্যে ছিলেন রোহানও। ৩১ বলে ফিফটি ছোঁয়া রোহান শেষ পর্যন্ত ৭ চার ও ৪ ছয়ে খেলে যান ৭৭ রানের ম্যাচ সর্বোচ্চ ইনিংস। আরব আমিরাত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান পায় ২৫ রানে অপরাজিত থাকা মোহাম্মদ শাহজাদের ব্যাট থেকে। পঞ্চম উইকেটে উসমান মুশতাককে নিয়ে শাহজাদ অবিচ্ছিন্ন থেকে তোলেন ৪৮ রান। প্রথম দিকে ওভারপ্রতি দশ গড়ে রান তোলা আমিরাতকে মাঝের ধাক্কায় শেষ অবধি সন্তুষ্ট থাকতে হয় ১৭৬ রানে। ম্যাচশেষে অবশ্য এ রানই যথেষ্ট হয়ে যায় আফগান কাঁপানো আমিরাত চমকের জন্য। ব্যাট হাতে ৭৭ রানের পর অফস্পিনে ১৯ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন রোহান।
প্রথম ম্যাচ হেরে গেলেও আফগানিস্তানের মূল পর্বে খেলার আশা শেষ হয়ে যায়নি। বাছাইয়ের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ ওমানের বিপক্ষে মাঠে নামছে ইনজামাম-উল হকের কোচিংয়ে থাকা দলটি। আরব আমিরাত নিজেদের পরের ম্যাচ খেলবে আগামীকাল হংকংয়ের বিপক্ষে।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
সংযুক্ত আরব আমিরাত ২০ ওভারে ১৭৬/৪ (রোহান ৭৭, শাহজাদ ২৫*; রশিদ ৩/২৫, হামজা ১/৩২)। আফগানিস্তান ১৯.৫ ওভারে অলআউট ১৬০ (সাদিক ৭২, নবি ২৩; রোহান ৩/১৯, ফারহান ২/২৮)। ফল :আরব আমিরাত ১৬ রানে জয়ী। ম্যাচসেরা : রোহান মুস্তফা।

মন্তব্য করুন