নেপালকে হারানোর প্রত্যয়

প্রকাশ: ২৫ আগস্ট ২০১৭

ক্রীড়া প্রতিবেদক

হাতছোঁয়া দূরত্বে ট্রফি। দুটি ধাপ দূরে। দুই ধাপ অতিক্রম করলেই স্বপ্ন পূরণ। আবারও কিশোর সাফের ট্রফি জিতবে বাংলাদেশ। সেই স্বপ্ন পূরণের পথে আজ বাধা নেপাল। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে হিমালয়ের দেশকে হারাতে প্রত্যয় মোস্তফা আনোয়ার পারভেজের দল। বাংলাদেশ সময় বিকেল সোয়া ৩টায় আনফা কমপ্লেক্সে শুরু হবে ম্যাচটি। একই সময়ে আরেক সেমিফাইনালে গতবারের রানার্সআপ ভারত খেলবে অপেক্ষাকৃত দুর্বল ভুটানের বিপক্ষে।
গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচে দাপুটে জয়। শ্রীলংকাকে ৪-০ ও ভুটানকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে শেষ চারের টিকিট কাটে জিহাদ হোসেনের দল। নেপালে কিশোরদের পারফরম্যান্স ছিল ঈর্ষণীয়। প্রতি ম্যাচেই নিজেদের উজাড় করে দিয়েছে ফয়সাল আহমেদ-নাজমুল বিশ্বাসরা। ভুটানের বিপক্ষে জয়টি ছিল টার্নিং পয়েন্ট। গত বছর সিনিয়ররা এই ভুটানের কাছে হেরেই তিন বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে নির্বাসনে চলে যায়। তাদের হারিয়ে প্রতিশোধ নেয় ছোটরা। ওই ম্যাচের পর পুরো দলের মাঝে ট্রফি জয়ের ক্ষুধা চলে এসেছে। অনুশীলনে সবাই সিরিয়াস।
সেমির প্রতিপক্ষ হিসেবে নেপালকে পাওয়ায় সবাই যেমন খুশি, তেমনি অস্বস্তিও আছে। কারণ ঘরের মাঠে খেলবে নেপাল। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে টুর্নামেন্টের ফেভারিট ভারতকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিল নেপালের কিশোররা। ২-১ গোলে হারলেও পুরো ৯০ মিনিট সমানতালে লড়েছিল স্বাগতিকরা। তাই আজকের ম্যাচ নিয়ে বেশ সতর্ক লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। নেপালকে কঠিন প্রতিপক্ষ মানলেও তাদের হারানোর ব্যাপারে দৃঢ় প্রত্যয় বাংলাদেশ কোচ পারভেজের, 'নেপাল ভালো দল। স্বাগতিক হিসেবে তারা সুবিধা পাবে। সেমিফাইনালে নেপালকে হারানোর চেষ্টা করব আমরা। গতকাল (বুধবার) ভারতকে ভালো চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিল নেপাল। তাদের শক্তি ও দুর্বলতা সম্পর্কে আমরা জানি। ম্যাচের জন্য আমরাও প্রস্তুত।'
দুই বছর আগে সিলেটে কিশোর সাফে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। আজ নেপাল বাধা অতিক্রম করতে পারলে সে ভারতই হতে পারে জিহাদ হোসেনদের ফাইনালের প্রতিপক্ষ। তবে আপাতত পুরো দলই নেপাল ম্যাচ নিয়ে ভাবছে। গ্রুপের দুই ম্যাচের মতো সেরাটা মেলে ধরতে পারলে স্বাগতিকদের হারানো অসম্ভব নয় বলে মনে করেন বাংলাদেশ কোচ।