'ওদের চেয়ে আমাদের স্পিন ভালো'

প্রকাশ: ২৫ আগস্ট ২০১৭

ক্রীড়া প্রতিবেদক

টেস্টখেলুড়ে দলগুলোর মধ্যে একমাত্র অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেই সাকিব আল হাসানের। থাকার কথাও অবশ্য নয়। কারণ দশ বছরের ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত অসিদের বিপক্ষে টেস্ট খেলার সুযোগ পাননি সাকিব। তবে এবার সেই সুযোগ এসেছে সাকিবের সামনে। প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলতে যাচ্ছেন টেস্ট সিরিজ। দুই ম্যাচ সিরিজের কোনো একটিতে ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিতে পারলেই টেস্টে সব প্রতিপক্ষের বিপক্ষে পাঁচ উইকেট নেওয়ার দারুণ এক রেকর্ড গড়বেন তিনি, যে রেকর্ডে এখন পর্যন্ত আছেন মাত্র তিনজন। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এই কথা মনে করিয়ে দেওয়ার পর সাকিব জানালেন, ব্যাপারটা মনে আছে তার নিজেরও। তবে একই সঙ্গে বললেন, শুধু রেকর্ডটা নিয়েই ভাবছেন না তিনি, 'চারটি ইনিংস আছে, দেখা যাক। রেকর্ড গড়ার চেয়ে আসলে কতটা বেশি অবদান রাখতে পারি, সেটাই বড়। দেখা গেল অন্য কেউ ভালো বোলিং করে পাঁচ উইকেট পেয়ে গেল, দলের জন্য সেটাও ভালো।'
বোলিং, বিশেষ করে স্পিন বিভাগে বাংলাদেশকে অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে খানিকটা এগিয়েই রাখলেন সাকিব। বললেন, 'আমার মনে হয়, আমাদের স্পিন আক্রমণ ওদের চেয়ে ভালো। সব কন্ডিশনে হয়তো নয়, তবে আমাদের দেশে আমরা ওদের চেয়ে ভালো। তাইজুল-মিরাজ অনেকদিন ধরে ভালো বোলিং করে আসছে। এই সিরিজে ওরা দারুণ কিছু করবে বলে বিশ্বাস করি।'
উপমহাদেশে অস্ট্রেলিয়ার সাম্প্রতিক ফর্ম খুব একটা ভালো নয়। অভিজ্ঞতার হিসেবেও অসিদের বর্তমান দলটা বাংলাদেশের চেয়ে খানিক পিছিয়ে। তবে এরপরও অস্ট্রেলিয়াকে সহজভাবে নেওয়ার সামান্যতম অবকাশ নেই বলে মত সাকিবের। বললেন, 'ওরা যে রকম দল নিয়েই আসুক, পরিবেশটা ওদের জন্য যতই অচেনা হোক, তবু ওরা সব সময়ই কঠিন প্রতিপক্ষ। বিশ্বের যে কোনো জায়গায় ওরা দ্রুত কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে। আমি তো বলব, এটা ওদের চেয়ে ভালো কেউই পারে না। যদিও ওরা একটু অনভিজ্ঞ এবং ভারত ও শ্রীলংকায় সাম্প্রতিক সময়ে ওদের পারফরম্যান্স তেমন ভালো নয়। আশা করব সেই বাজে ফর্মটা যাতে এখানেও অব্যাহত থাকে আর আমরা ভালো করতে পারি।'
অস্ট্রেলিয়ার উপমহাদেশীয় বাজে ফর্মের ধারাবাহিকতাটা যেমন আশা করেন, তেমনি সাকিবের আশা, নিজেদের ভালো ফর্মটা ধরে রাখার ব্যাপারেও। আর সেটার জন্য ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং সবক্ষেত্রেই ভালো করতে হবে বলে মনে করেন এই অলরাউন্ডার। তার মতে, স্পিন সহায়ক উইকেটে খেলা হবে বলে কেবল স্পিনারদের নিয়েই ভাবলে সেটা ভুল হবে। বড় প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ম্যাচের আগে তাই সব বিভাগেই নিজেদের সেরাটা দেওয়ার প্রত্যাশা সাকিবের, 'উইকেটে যদি স্পিনারদের জন্য সহায়তা থাকে, তবে আমার জন্য ভালো। যেহেতু আমি একজন স্পিনার। একই সঙ্গে আমাদের পেসারদেরও কিন্তু উইকেট নেওয়ার ক্ষমতা আছে, তারা দক্ষ। শুধু স্পিনারদের ওপর নির্ভর করে থাকলে চলবে না। মাঝে মধ্যে দেখা যায়, প্রতিপক্ষের বড় কোনো জুটি পেসাররা এসে ভাঙে। একজন স্পিনারের চার-পাঁচ উইকেটের চেয়েও কিন্তু এটা বড়। এ ছাড়া টেস্ট জেতার জন্য ব্যাটিংটাও খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।'
আর সিরিজের ফলাফলের ব্যাপারে প্রত্যাশাটা কী? অস্ট্রেলিয়াকে কি হারানো সম্ভব? ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টের মতো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও কি লেখা সম্ভব কোনো জয়গাথা? সাকিবের উত্তর, 'আমার মনে হয় সম্ভব। সম্ভব না হওয়ার কিছু দেখছি না। আর প্রত্যাশা? দুটি টেস্টই জেতা।'