ফিফটি-ফিফটি!

প্রকাশ: ১৭ মে ২০১৮      

স্পোর্টস ডেস্ক



মাঠে নামার আগেই প্রথম ধাপ পার করার চিন্তা মাথায় জেঁকে বসেছে দক্ষিণ কোরিয়ার। গ্রুপ পর্বের পরীক্ষায় পাস মার্কস উঠবে কি উঠবে না, চিন্তাটা ঘুরপাক খাচ্ছে কোরিয়ার খেলোয়াড়দের মাথায়ও। গত বুধবার এ নিয়ে কথা বলেছেন দেশটির সাবেক তারকা ফুটবলার পার্ক জি-সুং। ম্যানচেস্টার সিটির সাবেক এই ফুটবলারের অভিমত, বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ধাপটা অতিক্রম করার সুযোগ দক্ষিণ কোরিয়ার জন্য প্রায় ফিফটি-ফিফটি। ১৪ জুন থেকে রাশিয়ায় শুরু হওয়া বিশ্বকাপের কঠিন গ্রুপেই পড়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। গ্রুপ-ই-তে তাদের প্রতিপক্ষ জার্মানি, মেক্সিকো ও সুইডেন। ২০১৮ বিশ্বকাপ চলাকালে নিজ দেশের একটি লোকাল চ্যানেলে ধারাভ্যাষ্যকার হিসেবে কাজ করবেন পার্ক। সাবেক এই ফুটবলারও মনে করছেন বিশ্বকাপে কঠিন একটা গ্রুপে পড়েছে তার দেশ। তারপরও কোরিয়ার সমর্থকরা আশাবাদী, 'এ মুহূর্তে আমি মনে করি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার পার পাওয়ার সুযোগ প্রায় পঞ্চাশ ভাগ। তবে প্রস্তুতি আর সমর্থকদের সাপোর্ট দলকে আরও শক্তিশালী করবে বলে আশা করি।' দক্ষিণ কোরিয়ার হয়ে তিনটি বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছেন পার্ক। প্রতিবারই অন্তত একটি করে গোল করেছেন। বর্তমান দলের খেলোয়াড়দের থেকে এবার ভালো কিছুর প্রত্যাশায় ২৭ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার। সিউলে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, 'বিশ্বকাপের টিকিট পাওয়ার আগে থেকেই জাতীয় দলকে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা। যাক, আমরা কোয়ালিফাই করলাম। এটা আমাদের জন্য বড় একটা সুযোগ। আমার আশা, খেলোয়াড়রা মাঠেই তাদের নৈপুণ্য দেখাবে। ভালো পারফর্ম করে দেশকে সাফল্য উপহার দেবে।' দক্ষিণ কোরিয়ার প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে ডাক পেয়েছিলেন পার্ক। তার মতে, ইউরোপের বড় বড় দলের বিপক্ষে পারফর্ম করা মোটেও সহজ নয়। তাছাড়া দক্ষিণ কোরিয়া খুব বেশি স্কোরের সুযোগও পাবে না মনে করছেন পার্ক, 'ইউরোপের দলগুলোকে হারানো মোটেও সহজ নয়। তাদের বিপক্ষে চাইলেই আপনি একাধিক স্কোর করতে পারবেন না। সে ক্ষেত্রে সন হিউং-মিনের মতো কাউকে দারুণ একটা সমাপ্তি টানতে হবে।'