সেরেনার অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন জকোভিচ

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

স্পোর্টস ডেস্ক

ইউএস ওপেনের রাজা-রানী ঠিক হয়ে গেছে দু'দিন আগেই। কিন্তু এখনও সেখানে সেরেনার একটি অভিযোগ দিয়ে চলছে তর্ক-বিতর্ক। সেদিন ফাইনাল চলাকালে চেয়ার আম্পায়ারকে 'চোর ও মিথ্যাবাদী' বলে শোরগোল ফেলে দিয়েছিলেন সেরেনা উইলিয়ামস। শুধু সেখানেই থেমে থাকেননি টেনিস কোর্টে নারীদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হয় বলেও দাবি করেছেন। 'পুরুষদের বিপক্ষে কখনও এসব করতে পারেন না। কারণ ওরা আপনাকে চোর বলে।' আম্পায়ারকে বলা সেরেনার এই মন্তব্যের সঙ্গে একমত নন ইউএস ওপেনের চ্যাম্পিয়ন জকোভিচ। 'লিঙ্গবৈষ্যম্য বলে এই ঘটনার সাধারণীকরণ ঠিক নয় বলেই আমি মনে করি। আমি সেরেনাকে পছন্দ করি। সেদিন যা হয়েছে তা আমি বুঝতে পারছি। একজন চেয়ার আম্পায়ারের পক্ষে এই পরিস্থিতি সামলানো খুব কঠিন ছিল। খুবই আবেগপূর্ণ ছিল পরিস্থিতি। তবে, আমার মনে হয়েছে, চেয়ার আম্পায়ার হয়তো সেরেনাকে ওর ধৈর্যের শেষ সীমায় পৌঁছে দিয়েছিলেন।

নিজের ১৪তম গ্র্যান্ডস্লাম শিরোপা জেতার পর জকোভিচ জানান, কীভাবে ছোটবেলায় পিট সাম্প্রাসকে দেখে টেনিস খেলতে উদ্বুদ্ধ হয়েছিলেন। 'সাম্প্রাসই আমার ছেলেবেলার আদর্শ। ওর দিকেই আমি তাকিয়ে থাকতাম। এখনও মনে করতে পারি, টিভিতে ওর প্রথম বা দ্বিতীয় উইম্বলডন জয়। সেই জয় দেখার পরই ঠিক করে নিই টেনিস খেলব। তাই ওকে ছুঁয়ে ফেলাটা আমার কাছে সত্যিই অবিশ্বাস্য।' সাম্প্রাসকে ছোঁয়ার পর জকোর সামনে এখন নাদাল আর ফেদেরার। জকো কি পারবেন তাদেরও স্পর্শ করতে? 'দশ বছর আগে এ প্রশ্নটি করা হলে হয়তো বলতাম, ফেদেরার ও নাদালের সঙ্গে খেলতে পেরে আমি খুশি। আজ সত্যিই আমি খুশি ওদের সঙ্গে এক আসনে আসতে পেরে। এখন আমি নিজেকে ওদের সমকক্ষ ভাবি। ফেদেরারের সঙ্গে লড়াই, নাদালের সঙ্গে একাধিক ম্যাচই আমাকে আজ এখানে এই জায়গায় নিয়ে এসেছে। তাই আমার সাফল্যটা অনেকটাই ওদের জন্য।'
চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে র‌্যাবের অভিযান, আটক ১

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে র‌্যাবের অভিযান, আটক ১

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ১৫টি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একজনকে ...

বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণে ইচ্ছুক ইয়াবাকারবারিরা এখন কক্সবাজারে পুলিশ হেফাজতে এক ধরনের ...

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

চলতি বছর বিশ্বের যেসব দেশে ৭ শতাংশ বা এর বেশি ...

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

কামারপাড়া। ভেবেছিলাম পাড়ায় ঢুকতেই হাঁপর আর লোহা পেটানোর শব্দ শোনা ...

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

'দশে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাহি লাজ'- এ প্রবাদটিকে ...

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

গঠনতন্ত্রের 'সামান্য বাধা'য় দেয়াল উঠেছে যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ ...

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমে বিকশিত হচ্ছে প্রকাশনা শিল্প। সেইসঙ্গে প্রকাশকের সংখ্যাও বাড়ছে প্রতিবছর। ...

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

বগুড়ায় শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হলেও দাম পাচ্ছেন না চাষিরা। ...