এবার বার্নাব্যুর অপেক্ষায় ম্যালকম

প্রকাশ: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯     আপডেট: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

স্পোর্টস ডেস্ক

হেরেই যেতে বসেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু ম্যালকম সেটা হতে দেননি। দ্বিতীয়ার্ধে তার দারুণ গোলে সমতার দেখা পায় কাতালান ক্লাবটি। তাতে আত্মবিশ্বাসও বেড়েছে ব্রাজিলিয়ান সেনসেশনের। ম্যাচের পর চওড়া হাসিতেই জানালেন ফিরতি লেগের প্রস্তুতির কথা, 'গোল করতে পেরে ভালো লাগছে। আমার গোলে ম্যাচটা টাই হলো। এখন অপেক্ষা পরের লেগের জন্য। আমরা আত্মবিশ্বাস নিয়েই সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে যাব।'

লিওনেল মেসি ছিলেন সাইড বেঞ্চে। তাকে ছাড়া প্রথমার্ধে রীতিমতো ছন্নছাড়া বার্সার দেখাই মিলেছিল। শুরুতে গোলও খেয়ে বসে। এমন অবস্থায় নিশ্চয়ই বার্সার আক্রমণভাগের খেলোয়াড়দের ওপর চাপটা বাড়ার কথা। কিন্তু ম্যালকম এত সহজে ঘাবড়ে যাওয়ার খেলোয়াড় নন। মাথা ঠাণ্ডা রেখে আক্রমণ অব্যাহত রেখেছেন। সুযোগের সন্ধান করেছেন। শেষ পর্যন্ত সাফল্যও পেয়ে যান। রিয়াল মাদ্রিদের জালে বল পাঠানোর আগের অবস্থা নিয়ে ম্যালকম বলেন, 'আমি সর্বদা শান্ত থাকার চেষ্টা করি। আমার কিছু বন্ধু আছে যারা আমাকে প্রেরণা দেয়, আমার পরিবার পাশে আছে, এজেন্ট এবং সতীর্থরাও অনেক ক্ষেত্রে আত্মবিশ্বাস জোগায়। এক কথায় আমি অনেকের সাহায্য পাচ্ছি। যে কারণে খুব একটা চাপ মনে হয় না।'

মেসির ও উসমান দেম্বেলের চোট। যে কারণে বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দেকে একাদশ সাজাতে হয় একটু ভিন্নভাবে। আক্রমণে ফিলিপ কুতিনহো, লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে রাখা হয় ম্যালকমকে। স্প্যানিশ কোচের এই কৌশল যদিও বিফলে যায়নি। অন্তত মান বাঁচিয়ে মাঠ ছেড়েছে তারা।

ব্রাজিলের অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে বল পায়ে চমক দেখান ম্যালকম। সেখান থেকে ফরাসি ক্লাব বোরডাক্সেও আলো ছড়ান। এরপর গত বছর তাকে দলে বেড়ায় বার্সেলোনা।