মেজাজ হারালেন 'ক্যাপ্টেন কুল'

প্রকাশ: ১৩ এপ্রিল ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক

সোয়াই মানসিং স্টেডিয়ামে ওভারের মাঝখানে মাঠের ভেতরে ঢুকে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক করতে দেখে অনেকেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। ধারাভাষ্যে থাকা সাবেক ইংলিশ পেসার ডমিনিক কর্কের তো বিশ্বাসই হচ্ছিল না, 'এটা সত্যিই ধোনি তো!' টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে জিতলেও যার মুখে স্মিত হাসির চেয়ে বেশি কিছু দেখা যায় না, আর হারলেও কোনো প্রতিক্রিয়া থাকে না সে 'ক্যাপ্টেন কুল' এভাবে মাঠে নেমে পড়লেন! তবে এর জন্য ম্যাচ ফির পঞ্চাশ শতাংশ জরিমানা গুনতে হয়েছে তাকে।

আইপিএলে বৃহস্পতিবার রাতে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে শেষ ওভারে ১৮ রান প্রয়োজন ছিল ধোনির চেন্নাই সুপার কিংসের। বেন স্টোকসের করা সেই ওভারের তৃতীয় বলে আউট হয়ে যান ধোনি। এর পরও জয়ের জন্য শেষ তিন বলে ৮ রান প্রয়োজন ছিল তাদের। স্টোকসের চতুর্থ ডেলিভারিটি ব্যাটসম্যান সান্টনারের বুকসমান উচ্চতায় ধেয়ে আসে। উচ্চতার জন্য প্রথমে 'নো বল' ডেকেছিলেন নন স্ট্রাইক প্রান্তের আম্পায়ার উলহাস গান্ধে। কিন্তু স্কয়ার লেগে দাঁড়ানো আম্পায়ার ব্রুস অক্সেনফোর্ড সে সিদ্ধান্ত বাতিল করে জানান ডেলিভারিটি বৈধ। সঙ্গে সঙ্গে মাঠে থাকা চেন্নাইয়ের দুই ব্যাটসম্যান জাদেজা ও সান্টনার প্রতিবাদ জানিয়ে তর্ক জুড়ে দেন। তখন সীমানা দড়ির বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা চেন্নাই অধিনায়ক ধোনি ক্ষিপ্ত হয়ে মাঠে প্রবেশ করেন। কেন নো বল দেওয়া হবে না, তা নিয়ে দুই আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক জুড়ে দেন। ধোনি বেশ কয়েকবার দেখানোর চেষ্টা করেন যে উলহাস গান্ধে একবার নো বল ডেকেছিলেন। তবে আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত নড়চড় হয়নি। এর পরও শেষ বলে ছয় মেরে ম্যাচটা জিতেছে ধোনির দল। তবে সমালোচনা থেকে বাঁচতে পারেননি তিনি।

সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার ও বর্তমানে বিখ্যাত ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জেরেকার টুইট করেন, 'আমি সব সময়ই ধোনির ভক্ত। কিন্তু তিনি যা করেছেন, তা নিয়মবিরুদ্ধ। ধোনির ভাগ্য ভালো যে অল্প জরিমানা দিয়েই পার পেয়ে গেছেন।' ইংল্যান্ড অধিনায়ক মাইকেল ভনও কঠোর সমালোচনা করেন, 'খেলার জন্য এটা মোটেও ভালো নয়। একজন অধিনায়কের ওভাবে ডাগআউট

থেকে মাঠে ঢুকে পড়ার কোনো সুযোগ নেই।'