'নতুন' রোনালদোর পদধ্বনি

প্রকাশ: ১৩ এপ্রিল ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক

জোয়াও ফেলিক্সের বয়স মাত্র ১৯। কিন্তু এখনই তাকে ডাকা হচ্ছে 'নতুন রোনালদো' নামে। পর্তুগিজ এ টিনেজারের পেছনে টাকার থলে নিয়ে ছুটছে ম্যানচেস্টার সিটি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মতো ক্লাব। কেন তাকে নতুন রোনালদো বলা হচ্ছে এবং কেনই বা বিশ্বসেরা ক্লাবগুলো তার পেছনে ছুটছে সে প্রমাণ পাওয়া গেল বৃহস্পতিবার রাতে। ইউরোপা লীগের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়েসে (১৯ বছর পাঁচ মাস) হ্যাটট্রিক করেছেন ফেলিক্স। শুধু তাই নয়, রোবেন ডায়াজের করা অন্য গোলটিও তার পাসেই। এই টিনেজারের নৈপুণ্যেই ইউরোপা লীগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ফ্রাঙ্কফুর্টের বিপক্ষে ৪-২ গোলে জয় পেয়েছে বেনফিকা।

মাত্র ১৯ বছর বয়েসে এমন কীর্তির গড়ার পর ফেলিক্সকে নিয়ে মাতামাতি হওয়াটা স্বাভাবিক। গণমাধ্যমও তাকে 'সুপার হিরো' নামে ডাকা শুরু করে দিয়েছে। আর এতেই আপত্তি বেনফিকার কোচ ব্রুনো লাজের, 'তাকে এখনই সুপার হিরো বানাবেন না! জোয়াওকে হয়তো এখন আর সাধারণ মনে হয় না, কিন্তু সে তাই। সে এখনও বাচ্চা। সে এখনও মাঠে নামে এবং মজা করে যেন পার্কে খেলতে নেমেছে। আমাদের তাকে একটু সময় দেওয়া উচিত। যেন সে আরও পরিণত হতে পারে।' ফেলিক্সকে নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরেই আলোচনা হচ্ছে। দুর্দান্ত ড্রিবলিং ক্ষমতার পাশাপাশি দারুণ শটও নিতে পারেন ফেলিক্স। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, এই বয়সেই খেলাটাকে ভীষণ বোঝেন। ড্রিবলিং করে একা যেমন বল নিয়ে এগোতে পারেন, ঠিক তেমনি পাস দিয়ে পুরো দলকে খেলাতেও পারেন। পর্তুগিজ হিসেবে তাই নতুন রোনালদো খেতাব পেতে মোটেও সময় লাগেনি তার। এর মধ্যে বছরের শুরুতে তাকে দলে ভেড়ানোর জন্য তোড়জোড় শুরু করে ম্যানচেস্টারের দুই জায়ান্ট। বৃহস্পতিবার রাতের পারফরম্যান্সের পর সে দৌড়ে ইউরোপের নামি-দামি আরও অনেক ক্লাবই শামিল হবে।

ম্যাচের ২১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে প্রথম গোল করেন ফেলিক্স। চল্লিশ মিনিটের সময় অনেকটা খেলার ধারার বিপরীতে আচমকা শটে ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে আনেন বেনফিকা থেকেই ধারে ফ্রাঙ্কফুর্টে যাওয়া লুকা জোভিচ। কিন্তু তিন মিনিটের মধ্যে বেনফিকাকে আবার এগিয়ে দেন ফেলিক্স। বিরতির পর এই ফেলিক্সের ফ্লিক করে বাড়ানো বলেই হেড করে ব্যবধান ৩-১-এ নিয়ে যান ডায়াজ। ৫৪ মিনিটে গ্রিমিল্ডোর ক্রসে পা ছুঁইয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন ১৯ বছরের এ টিনেজার।