চার মাসের জন্য মাঠের বাইরে খালেদ

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০১৯      

ক্রীড়া প্রতিবেদক

এ মুহূর্তে জাতীয় দল ব্যস্ত বিশ্বকাপ নিয়ে। এই মিশনে তিনি স্ট্যান্ড বাই তালিকাতেও নেই। তবে বিশ্বকাপের পর জাতীয় দলের যে টেস্ট-ব্যস্ততা, সে ভাবনায় আছেন ভালোমতোই। এমন এক গুরুত্বপূর্ণ সময়ে চোটাঘাতে আক্রান্ত হলেন সৈয়দ খালেদ আহমেদ। জাতীয় দলের এই ডানহাতি পেসার বাঁ হাঁটুতে চোট পেয়েছেন, যা সেরে ওঠার জন্য অস্ত্রোপচার আবশ্যক। আর অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হওয়ার পর তিন থেকে চার মাস তাকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী গতকাল বলেন, 'অস্ত্রোপচার যেহেতু করাতেই হবে, দ্রুত করাই ভালো। এখন অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর বা ভারতের মধ্যে কোথায় করা যায়, সেটি দেখা হচ্ছে।' ঢাকায় এলিট ক্যাম্পে থাকার পর ঈদের ছুটিতে বাড়িতে গিয়েছিলেন খালেদ। বাড়িতে বসে খেলার দেখার সময়ই আচমকা মাসল ক্রাম্প হয় তার। মাসল ফ্রি করার সময় দ্রুত পা নাড়াতে গিয়ে হাঁটুর নিচের অংশে আঘাত লাগে। এমআরআই রিপোর্টে তার মিনিস্কাসে আঘাতের ঘটনা ধরা পড়ে। বিশ্বকাপের পরপর জাতীয় দলের কোনো ব্যস্ততা না থাকলেও 'এ' দলের আছে। ৫ জুলাই থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ 'এ' ও আফগানিস্তান 'এ' দলের মধ্যে দুটি চার দিনের ম্যাচ ও পাঁচটি পঞ্চাশ ওভারি ম্যাচ। খেলার মধ্যে রেখে ছন্দে থাকার জন্য জাতীয় দলের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারেরই ওই সিরিজে খেলার কথা। খালেদও আফগানিস্তান 'এ' দল সফরের ভাবনায় গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিলেন। কিন্তু চোটের কারণে নিশ্চিতভাবেই তিনি ওই সিরিজ মিস করছেন। এখন পর্যন্ত যে সিডিউল, তাতে বাংলাদেশ জাতীয় দলের পরবর্তী মিশন নভেম্বরে। ভারতে গিয়ে দুটি টেস্ট ও তিনটি টি২০ খেলার কথা আছে সাকিব আল হাসানদের। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ওই সফরের আগেই ফিট হয়ে ওঠার কথা খালেদের। সিলেটের এই পেসার দলের জার্সিতে সর্বশেষ খেলেছেন মার্চে নিউজিল্যান্ড সফরের সময়।