ভারতীয় ভক্তরা তাকে ডাকে 'হিটম্যান' বলে। তার ব্যাটিংয়ে আছে এক ধরনের অলস সৌন্দর্য, যা দেখলে মনে হবে, ব্যাটিং করার চেয়ে সহজ কাজ আর নেই। বলা হচ্ছিল এ বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক রোহিত শর্মার কথা। এখন পর্যন্ত এ আসরে ৬৪৭ রান করেছেন রোহিত। বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এক আসরেই রেকর্ড পাঁচ সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। আর মাত্র ২৭ রান করলেই বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ রানের শচীনের রেকর্ডটিও নিজের করে নেবেন তিনি। যেভাবে একের পর এক রেকর্ড গুঁড়িয়ে দিচ্ছেন, তাতে নতুন কোনো নামে রোহিতকে ডাকার সময় বোধহয় এসেই গেছে। সে নামটি যদি 'ইউনিভার্স বস' হয়?

বলতে পারেন, এটা তো ক্রিস গেইলের উপাধি। হ্যাঁ, বিশ্বব্যাপী টিটোয়েন্টি ক্রিকেটে বোলারদের ওপর ছড়ি ঘুরিয়ে নিজেই নিজেকে ইউনিভার্স বস খেতাব দিয়েছিলেন ক্রিস গেইল। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে গেইলের সময় ফুরিয়ে আসছে। তা ছাড়া রোহিতের মতো করে একদিনের ক্রিকেটে প্রভাব বিস্তার করতে পারেননি গেইল। ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে ধরলে এ পর্যন্ত ওয়ানডেতে রান তোলার ক্ষেত্রে বিরাট কোহলির পরই রোহিত শর্মার অবস্থান। এ সময়ে ৬০ ইনিংসে ৩৪২৩ রান করেছেন তিনি। তবে এ সময়ে সেঞ্চুরির ক্ষেত্রে সবার ওপরে তিনি। রোহিতের শতক ১৬টি। এমনকি এক্ষেত্রে পিছিয়ে আছেন কোহলিও। আর এ সময়ে রোহিতের ছক্কার হিসাবটি দেখুন। ১১৩ ছক্কা হাঁকিয়েছেন তিনি। এ তালিকায় তার ধারেকাছে নেই স্বঘোষিত ইউনিভার্স বসও। গেইলের ছক্কা ৮৮টি। শুধু তাই নয়, ২৩২টি ছক্কা নিয়ে ভারতের হয়েও সবচেয়ে বেশি ছক্কার মালিক রোহিত শর্মা। এ তো গেল রোহিতের ব্যাটের খুনে দিকের কথা। কিন্তু বড় ইনিংস খেলতে জুড়ি নেই তার। ওয়ানডেতে ২৭ সেঞ্চুরির সঙ্গে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরিও আছে এই ওপেনারের। যেখানে ওয়ানডের ইতিহাসেই মোট ডাবল সেঞ্চুরি আটটি। টেকনিক্যালি খুব ভালো না হলেও উইকেটে থেকে বোলারদের যেভাবে শাসন করেন, তাতে তাকে ইউনিভার্স বস তো বলাই যায়।

মন্তব্য করুন