অস্ট্রেলিয়াকে হুমকি প্লাঙ্কেটের

প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক

ক্রিকেটের লড়াইটা যতটা না স্কিলের ততটাই আবার মনস্তাত্ত্বিক। বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে চাপের মধ্যে ভালো করতে হলে মানসিক দৃঢ়তা থাকাটা জরুরি। এ বিশ্বকাপ এখন পরিণতির দিকে এগোচ্ছে। শেষ দিকে এসে মাঠের লড়াইয়ের পাশাপাশি তাই মাইন্ড গেমটাও জমে উঠেছে বেশ। সেটি যদি ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মতো দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে হয় তাহলে তার ঝাঁজটা টের পাওয়া যায় ভালোভাবেই।

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে কাল বার্মিংহামে মুখোমুখি হচ্ছে এই দুই দল। ব্লকবাস্টার এ ম্যাচের আগে মনস্তাত্ত্বিক লড়াইয়ে এগিয়ে থাকার অংশ হিসেবেই দু'দিন আগে অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার নাথান লায়ন বলেছিলেন, এ সেমির আগে অস্ট্রেলিয়ার হারানোর কিছু নেই। চাপ সব ইংল্যান্ডের ওপরই। এবার তার কথা ফিরিয়ে দিতেই কি না ইংল্যান্ডের পেসার লিয়াম প্লাঙ্কেট বলেছেন, এই ইংল্যান্ড আগের মতো সহজ প্রতিপক্ষ নয়।

অস্ট্রেলিয়াকে সতর্ক করে অভিজ্ঞ এই পেসার বলেছেন, 'আমরা গত চার বছর ধরে ভালো খেলছি। র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষেও উঠেছি। নিজেদের দিনে আমরা যে কাউকে হারাতে পারি।'

এবারের ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ট্রফি জেতার মিশনে এগোচ্ছে ইংলিশরা। এক্ষেত্রে কাল প্রথম বাধা হিসেবে পেরোতে হবে পাঁচবারের শিরোপাজয়ী অস্ট্রেলিয়াকে। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এ পর্যন্ত আটবার খেলেছে এ দুই দল। ছয়বারই জয়ী দলটির নাম অস্ট্রেলিয়া। এর মধ্যে ১৯৮৭ সালের ফাইনালও আছে। বিশ্বকাপে অজিদের বিপক্ষে সর্বশেষ ১৯৯২ সালে ইয়ান বোথামের বীরত্বে জিততে পেরেছিল ইংলিশরা। এ আসরেও লর্ডসের ম্যাচটা জিতেছে অস্ট্রেলিয়াই। তবে প্লাঙ্কেট বিশ্বকাপে অজিদের রেকর্ড নিয়ে চিন্তিত নন, 'তারা ভাল দল। আগেও এ ধরনের ম্যাচ জিতেছে। তবে এই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নয়।'

ইংল্যান্ড দলে অনেকদিন ধরেই আছেন প্লাঙ্কেট। দল হিসেবে এক দিনের ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের উত্থানের সাক্ষী তিনি। এটাই হয়ত তার শেষ বিশ্বকাপ। নিজেও মানছেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারে এর চেয়ে বড় উপলক্ষ আসেনি তার জীবনে। তাই জয় দিয়েই উপলক্ষ স্মরণীয় করে রাখতে চান তিনি, 'আমাদের আগেও খুব ভালো খেলোয়াড় ছিল কিন্তু তাদের নিয়ে কখনই বিশ্বকাপ জিতব তা ভাবিনি। তবে এবার লোকে আমাদের কাছে জয় প্রত্যাশা করে। গত চার বছরে যেভাবে খেলেছি বিশ্বকাপ জিতে তার চক্রটা পূরণ করতে চাই।'