আফগানিস্তানের হোম ভেন্যু নিয়ে ভাবনা বাফুফের

প্রকাশ: ১৯ জুলাই ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক

যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তানে নিরাপত্তাশঙ্কায় ভিনদেশি দেশ সাধারণত খেলতে যায় না। সর্বশেষ ফিফা বিশ্বকাপ এবং এএফসি কাপের বাছাইপর্বের কোনো দেশকে নিতে না পেরে শেষ পর্যন্ত ইরান ও তাজিকিস্তানে হোম ভেন্যু করতে হয়েছিল তাদের। তবে গত বছর ফিলিস্তিনের বিপক্ষে একটি প্রীতি ম্যাচ হয়েছিল আবার কাবুলে। আসন্ন ফিফা বিশ্বকাপ ও এএফসি এশিয়ান কাপের বাছাইয়েও হোম ভেন্যু কি কাবুল হয়, নাকি ভিন্ন কোনো দেশ- এ নিয়ে এখন ভাবনায় আছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। আফগানদের বিপক্ষে বাংলাদেশের অ্যাওয়ে ম্যাচটি হওয়ার কথা ১০ সেপ্টেম্বর, ওই ম্যাচ দিয়েই শুরু হবে লাল-সবুজ প্রতিনিধিদের বাছাই পর্ব।

এবারের ফিফা বিশ্বকাপ ও এএফসি কাপের বাছাইয়ে বাংলাদেশ পড়েছে 'ই' গ্রুপে। পাঁচ দল নিয়ে গড়া গ্রুপে জামাল ভূঁইয়াদের অন্য তিন প্রতিপক্ষ ভারত, ওমান এবং কাতার। চার প্রতিপক্ষের বিপক্ষে হোম অ্যাওয়ে ভিত্তিতে খেলতে হবে আটটি ম্যাচ। আফগানদের বিপক্ষে হোম ম্যাচটি হবে ২০২০ সালের ২৬ মার্চ, আর অ্যাওয়ে ম্যাচটিই এই সেপ্টেম্বরে। কোন দেশ কোন মাঠকে তাদের হোম ভেন্যু বানাচ্ছে- আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যেই তা ফিফা এবং এএফসিকে জানাতে বলা হয়েছে। আফগানিস্তান যেহেতু ঘরে-বাইরে দুই জায়গাতেই খেলে, সুতরাং, হোম ভেন্যু নিয়ে ধোঁয়াশা এখনও থেকেই যাচ্ছে। শেষ পর্যন্ত যদি কাবুলকে হোম ভেন্যু করা হয়, সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ দল নেতিবাচক কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে। তবে আপাতত অপেক্ষা আফগানিস্তান ফুটবল ফেডারেশনের সিদ্ধান্তের জন্য। গতকাল বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ এ বিষয়ে বলেন, 'কাবুল হোম ভেন্যু হলে সেখানে গিয়ে খেলাটা কঠিন। নিরাপত্তার ব্যাপারটি এখানে বড় হয়ে দাঁড়াচ্ছে। তখন আমরা এই বিষয়ে ফিফার কাছে আপত্তি জানাতে পারি। তবে এখন আপাতত অপেক্ষাই করতে হচ্ছে।' ফিফা ও এএফসির দুই বাছাইয়ে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ ১০ অক্টোবর কাতারের বিপক্ষে (হোম)।