অবশেষে ভারত যাচ্ছেন খালেদ

প্রকাশ: ১৯ জুলাই ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক

হাঁটুর চোট নিয়ে দু'মাস ধরে খেলার বাইরে খালেদ হোসেন। বিসিবি কর্মকর্তারা ইংল্যান্ডে থাকায় তার চিকিৎসার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হচ্ছিল না। অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর না ভারত, কোথায় হবে চিকিৎসা- এ নিয়েও সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগেছেন বিসিবি চিকিৎসকরা। শেষ পর্যন্ত খরচ ও যোগাযোগের কথা মাথায় রেখে চোটাক্রান্ত হাঁটুর চিকিৎসার জন্য খালেদকে ভারতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়।

বিসিবি থেকে সবকিছুর অনুমোদন হওয়ার পরও দ্রুত চিকিৎসা নিতে পারলেন না জাতীয় দলের এই পেসার। ভারতের ভিসা নিয়ে জটিলতা হওয়ায় লম্বা সময় অপেক্ষা করতে হয় তাকে। নির্ধারিত সময়ে ভিসা না পাওয়ায় গত ৬ জুলাই মুম্বাইয়ে চিকিৎসকের অ্যাপয়েনমেন্ট মিস করতে হয়েছে তাকে। মুম্বাইয়ে ড. দিনশ পার্দিওয়ালার কাছে চিকিৎসা নেবেন জাতীয় দলের এই পেসার। শেষ পর্যন্ত ভিসা হাতে পাওয়ায় আগামী ২২ জুলাই মুম্বাই যেতে পারছেন সিলেটের এ ক্রিকেটার। পরদিন ২৩ জুলাই অর্থোপেডিক সার্জন দিনশ পার্দিওলাকে হাঁটু দেখাবেন তিনি। খালেদের চোটাক্রান্ত বাঁ হাঁটুতে অস্ত্রোপচার করাতে হবে। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানান, রিপোর্ট দেখার পর অস্ত্রোপচারের সময় নির্ধারণ করবেন ভারতের এই চিকিৎসক। তবে অস্ত্রোপচার গুরুতর নয় বলেন তিনি। রোজার সময় খালেদের বাঁ হাঁটুতে জার্কিং (ঝাঁকি) হওয়ায় তরুণাস্থি (মিনিসকাস) ক্ষতিগ্রস্ত হয়। স্ক্যান রিপোর্ট দেখে দেশের বিশেষজ্ঞ অর্থোপেডিক সার্জনরা অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন। খালেদের বিশ্বাস, অস্ত্রোপচার হলেও দ্রুতই খেলায় ফিরতে পারবেন তিনি।