'নেতা হিসেবে কথার চেয়ে বেশি কাজ করতে হবে'

অধিনায়কত্বের পরীক্ষায় সময় চাইলেন তামিম

প্রকাশ: ২২ নভেম্বর ২০২০

ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রায় আট মাস হয়ে গেল আন্তর্জাতিক ম্যাচে খেলা হয়নি বাংলাদেশের। অধিনায়ক তামিমেরও টস করার সৌভাগ্য হয়নি। তবে এই করোনাকালেই বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ হয়েছিল তার। সেখানে অবশ্য ভালো করতে পারেনি তার দল। চার ম্যাচে মাত্র একটিতে জয়। এবার ফরচুন বরিশালের নেতৃত্ব দিতে যাচ্ছেন তামিম। এবার কি পারবেন অধিনায়ক তামিম তার নৈপুণ্য দেখাতে? অধিনায়কত্ব কি তার জন্য বাড়তি চাপ হয়ে যায়? গতকাল মিরপুর একাডেমির মাঠে এমনই প্রশ্ন রাখা হয়েছিল তামিম ইকবালের সামনে। প্রশ্নকর্তার দিকে তাকিয়ে তামিমের উত্তর- 'অধিনায়কত্বের চাপ? আমি তো এখন পর্যন্ত ওই রকম কোনো ম্যাচই খেলিনি। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ হতে হবে তো- এটা আসলে আপনাদের মিডিয়ার বানানো। যেদিন অধিনায়কত্ব পেয়েছি সেদিনই বলেছি, অধিনায়কত্ব বিচার করবেন ছয় মাস কিংবা এক বছর পর।'

তামিমের যুক্তি একটি বাচ্চা হাঁটতে শিখতেও নয় মাস সময় নেয়। সেখানে জাতীয় দলের হয়ে এখনও কোনো ম্যাচেই মাঠে নামতে পারেননি তিনি। বিশ্বকাপের পর অন্তর্বর্তীকালীন অধিনায়ক হয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিলেন তামিম। যার সব ক'টিতেই হারতে হয়েছিল। তামিমের অনুরোধ, তাকে অন্তত ছয় মাস সময় দেওয়া হোক। 'খেলায় আমার অধিনায়কত্ব কতটা প্রভাব ফেলেছে, সেটা অন্তত বিশ ম্যাচ পর বিচার করেন। সেটা দু-তিন ম্যাচ পরই করতে পারেন না। আমি ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখিনি যে, দেশের হয়ে অধিনায়কত্ব করব। এখন সুযোগ এসেছে আমার কাছে, ভালো হবে খারাপ হবে সেটা সময়ই বলে দেবে।' তবে তামিম এটা মেনে নিয়েছেন যে, অধিনায়কত্বের দায়িত্ব অন্যদের চেয়ে অনেক বেশি। 'আমি যেটা মনে করি, একজন অধিনায়ককে সবার দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। এটা অবশ্য আমি অধিনায়ক না থাকলেও করি। লিডার আপনি যে কোনো সময়ই হতে পারেন। ভালো নেতা হওয়ার জন্য অধিনায়কত্বের দরকার নেই। নেতা হিসেবে আপনাকে কথার চেয়ে বেশি কাজ করতে হবে।' তামিমের কথায় পরিস্কার, অধিনায়কত্বের বাড়তি দায়িত্ব তিনি নিতে পুরোপুরি প্রস্তুত।