স্বপ্নের সীমানা ছাড়িয়ে মাবিয়া আক্তার সীমান্ত। ম্যাটে উঠেই নিজের রেকর্ড ছাড়িয়ে যাচ্ছেন ভারোত্তোলনের এ তারকা। ব্যতিক্রম হয়নি বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমসেও। গতকাল ময়মনসিংহে অনুষ্ঠিত ৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে বাংলাদেশ আনসারের মাবিয়া আক্তার সীমান্ত সোনা জয়ের পথে স্ন্যাচে রেকর্ড ৮০ কেজি তোলেন, ক্লিন অ্যান্ড জার্কে রেকর্ড ১০১ কেজি উত্তোলন করেন। দুই বিভাগ মিলিয়ে ১৮১ কেজি ওজন তুলে আরও একটি রেকর্ড গড়ে স্বর্ণ জিতেছেন মাবিয়া আক্তার। এসএ গেমসে ৭৫ কেজি ওজন তুলে স্বর্ণ পেয়েছিলেন তিনি। ২০১৮ সালে আন্তঃসার্ভিস ভারোত্তোলনে ১৭৯ কেজি তুলে রেকর্ড গড়েছিলেন মাবিয়া। এবার সেই রেকর্ডও ভেঙে দিলেন তিনি।

২০১৬ সালে সাউথ এশিয়ান গেমসে স্বর্ণ জয়ের পর মাবিয়া আক্তার সীমান্তের কান্না ছিল পাঁচ বছর আগের গেমসে বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি। সেই মাবিয়া ২০১৯ সালে নেপালে অনুষ্ঠিত এস এ গেমসে স্বর্ণ জিতেছিলেন। এবার বাংলাদেশ গেমসে নিজের করা আগের রেকর্ড ভাঙায় তৃপ্ত মাবিয়া, 'আমার প্রিয় ইভেন্টে তিনটি রেকর্ড গড়ে স্বর্ণ পদক জেতায় আমি খুশি। এটা ধরে রাখতে চাই ভবিষ্যতে।' এবার ৬৪ কেজি ওজন শ্রেণিতে অংশ নেওয়ার জন্য ১০ কেজি ওজন কমিয়েছেন তিনি, 'আমার প্রিয় ইভেন্ট হলো ৬৩ কেজি ওজন শ্রেণি। কিন্তু এখন তা ৬৪ কেজিতে প্রতিযোগিতা করতে হচ্ছে। এ জন্য আমাকে অনেক ঘাম ঝরাতে হয়েছে। ওজন কমাতে হয়েছে ১০ কেজির মতো। কেননা আমাকে যে করেই হোক ভালো পারফরম্যান্স করে দেখাতে হবে। অবশেষে সেই চেষ্টা সার্থক হয়েছে।' রেকর্ড ভাঙা মাবিয়ার স্বপ্ন টোকিও অলিম্পিকে খেলার। অলিম্পিকে খেলতে হলে চলতি মাসেই উজবেকিন্তানে বাছাই পর্ব খেলতে হবে। সেখানে সাফল্য পেলেই হয়তো অলিম্পিকের মতো বড় আসরে খেলার স্বপ্নপূরণ হতে পারে তার, 'উজবেকিস্তানের প্রতিযোগিতায় ভালো করতে পারলে হয়তো টোকিও অলিম্পিকে খেলার টিকিট মিলবে। এ জন্য অবশ্য আমাকে আরও পরিশ্রম করতে হবে।'

বুধবার নারীদের ৭১ কেজিতে সোনা জয়ের পথে ক্লিন অ্যান্ড জার্কে রেকর্ড গড়েন সেনাবাহিনীর ফারজানা আক্তার রিয়া। স্ন্যাচে ৬০ কেজি তোলার পর ক্লিন অ্যান্ড জার্কে রেকর্ড ৭৮ কেজি ভার তোলেন তিনি। মোট তোলেন ১৩৮ কেজি।

মন্তব্য করুন