১১ মে শেষ হবে প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বের চার রাউন্ডের খেলা। লিগ শেষ হওয়ার আগেই শুরু হয়ে যাবে জাতীয় দলের ক্যাম্প। ঢাকার একটি হোটেলে থাকবেন জামাল ভূঁইয়ারা। ১০, ১২ এবং ১২ মে তিন দিনে রোলিং ব্যাসিসে ক্যাম্পে উঠবেন ফুটবলাররা। অর্থাৎ যে ক্লাবের খেলা আগে শেষ হবে, সেই ক্লাবের যেসব খেলোয়াড় প্রাথমিক দলে আছেন, তারাই উঠবেন ক্যাম্পে। জুনে কাতারে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপ বাছাইপর্বকে সামনে রেখে গতকাল ন্যাশনাল টিমস কমিটির মিটিং শেষে এমনটিই জানিয়েছেন বাফুফে সহসভাপতি ও কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ এমপি। ঢাকায় ক্যাম্প শেষ করার পর ২১ কিংবা ২২ মে কাতারে যাবে জাতীয় ফুটবল দল। সেখানে স্থানীয় দুটি ক্লাবের সঙ্গে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার পরিকল্পনার কথা কাতারকে জানিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। ২৫ এবং ২৯ তারিখে এই ম্যাচ দুটি খেলতে চায় বাংলাদেশ। আগামীকাল ঢাকায় আসছেন প্রধান কোচ জেমি ডে। আফগানিস্তান, ভারত ও ওমানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে বাংলাদেশের তিনটি ম্যাচ বাকি রয়েছে। ৩ জুন আফগানিস্তান, ৭ জুন ভারত এবং ১৫ জুন ওমানের বিপক্ষে খেলবে লাল-সবুজের দলটি। ক্যাম্পের জন্য গতকাল মোট ৩৩ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। মূল দলে থাকা ২৮ জনের সঙ্গে স্ট্যান্ডবাই হিসেবে আছেন অনূর্ধ্ব-২৩ দলের পাঁচ ফুটবলার। এএফসি কাপ খেলতে আজ মালদ্বীপে যাচ্ছে বসুন্ধরা কিংস। ক্যাম্পে ডাক পাওয়া ১০ ফুটবলারই এ ক্লাবটির। এএফসির খেলা শেষ করে ২১ মে মালদ্বীপ থেকে সরাসরি কাতারে চলে যাবেন জিকো-তপুরা। করোনার কারণে এবার প্রাথমিক দলের তালিকটা লম্বা করেছে বাফুফে। আর স্ট্যান্ডবাই হিসেবে রাখা হয়েছে পাঁচ ফুটবলারকে, যাতে করে মূল দলের কেউ করোনায় আক্রান্ত হলে স্ট্যান্ডবাইয়ে থাকা খেলোয়াড়কে নেওয়া যায়। বিদেশি কোচের সঙ্গে কাতারে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে দেখা যেতে পারে দেশীয় কোনো কোচকে।

বাংলাদেশের প্রাথমিক দল

আনিসুর রহমান, বিশ্বনাথ, রিমন, জনি, বিপলু, মাহবুবুর, মতিন মিয়া, তপু, ইব্রাহিম, তারিক কাজি, শহিদুল, সোহেল রানা, সাদ উদ্দিন, রহমত মিয়া, রিয়াদুল হাসান, ইয়াসিন আরাফাত, জামাল ভূঁইয়া, মেহেদী হাসান, রয়েল, ইমন, রানা, আব্দুল্লাহ, মানিক, রাকিব, রেজাউল করিম, সোহাগ, সুমন রেজা এবং জুয়েল।

স্ট্যান্ডবাই: মিতুল, আতিকুজ্জামান, আবু শাহেদ, ইমরান হোসেন, ফয়সাল।

মন্তব্য করুন