টেবিল টেনিসের লড়াইয়ে নাটালিয়া পার্টিকায়ের দিকে তাকালে ভিন্ন কিছু দেখতে পাবেন না আপনি। অন্য সবার মতো তার ফুটওয়ার্ক দুর্দান্ত। ব্যাকহ্যান্ড ও ফোরহ্যান্ডও দারুণ। তার ডিফেন্সও ভালো। তার খেলা সেরা টেবিল টেনিস খেলোয়াড়ের মতোই। কিন্তু আপনি যদি কাছ থেকে দেখেন, তাহলে জানতে পারবেন আসল সত্যটি। যখন তিনি সার্ভ করতে যাবেন, তখনই দেখছেন নাটালিয়ার ডান হাতের সামনের অংশ নেই। জন্মগতভাবে শারীরিক প্রতিবন্ধী হলেও পোল্যান্ডের এ টেবিল টেনিস খেলোয়াড় থেমে যাননি। ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে আলাদাভাবে নজর কেড়ে নেওয়া ৩০ বছর বয়সী নাটালিয়া খেলছেন টোকিও অলিম্পিকে। অবশ্য অলিম্পিকে তার পথচলা শুরু ২০০৮ সাল থেকে। খেলেছিলেন ২০১৬ রিও অলিম্পিকেও। নাটালিয়ার দুর্দান্ত স্কিল দেখে কখনোই মনে হয়নি যে, তিনি একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী। এবারের অলিম্পিকেও নিজেকে মেলে ধরেছেন। গতকাল টিটি প্রতিযোগিতার প্রথম রাউন্ডে অস্ট্রেলিয়ার মাইকেল ব্রমলিকে ৪-০ সেটে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছেন নাটালিয়া। শারীরিক প্রতিবন্ধী বলে প্যারা-অলিম্পিকেই বেশি অংশগ্রহণ করেছেন তিনি। ২০০০ সিডনি প্যারা-অলিম্পিকে ১১ বছর বয়সে অংশগ্রহণ করেন। চার বছর পর অ্যাথেন্সে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগিতায় মাত্র ১৫ বছর বয়সী স্বর্ণ জিতে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছিলেন।

মন্তব্য করুন