তিল তিল করে ক্রিকেট ফেরানোর মরিয়া চেষ্টা এভাবে শেষ হয়ে যাবে! নিরাপত্তার শঙ্কা দেখিয়ে নিউজিল্যান্ড আচমকা পাকিস্তান সফর বাতিল করে চলে যাওয়ায় এই ভয় পেয়ে বসেছে পিসিবিকে। তাই বলে হাল ছেড়ে দিচ্ছে না পিসিবি (পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড)। নিউজিল্যান্ড সফর বাতিল করার পরপরই পিসিবির নয়া চেয়ারম্যান রমিজ রাজা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সঙ্গে যোগাযোগ করেন। যোগাযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছে পিসিবি। তাদের ডাকে দক্ষিণ এশিয়ার দুটি দেশের বোর্ডই ইতিবাচক সাড়া দিয়েছে বলে জানিয়েছেন পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান। দুই বোর্ডই পাকিস্তানের এই কঠিন সময়ে দল পাঠানোর ইচ্ছা প্রকাশ করে। কিন্তু অন্য সূচিতে ব্যস্ত থাকায় এবং করোনাকালে এত স্বল্প সময়ের নোটিশে দল পাঠানো সম্ভব নয় বলেও জানান তিনি।

ওয়াসিম খান গণমাধ্যমে গতকাল বলেন, 'এ সময়ে সংক্ষিপ্ত সফরের জন্য দল পাঠানো সম্ভব কিনা, সে বিষয়ে আমাদের চেয়ারম্যান দুই বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। উভয় বোর্ডই আমাদের প্রস্তাব ভীষণ ইতিবাচকভাবে নিয়েছে। তবে তারা এটাও পরিস্কার জানিয়েছে, পূর্বনির্ধারিত সূচি থাকায় এবং খেলোয়াড়রা বিভিন্ন টুর্নামেন্টে ব্যস্ত থাকায় এ মুহূর্তে তাদের পক্ষে দল পাঠানো ভীষণ কঠিন।' পিসিবির প্রধান নির্বাহী আরও যোগ করেন, 'দুই বোর্ডই দল পাঠানোর ব্যাপারে জোরালো ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। কিন্তু সবাই বিশ্বকাপের পরিকল্পনা নিয়ে ব্যস্ত থাকায় এই সংক্ষিপ্ত সময়ে সফরে আসা সম্ভব হচ্ছে না।' এই প্রস্তাবের সত্যতা স্বীকার করে বিসিবির প্রধান নির্বাহী বলেন, 'হ্যাঁ, এই বিষয়ে পিসিবির সঙ্গে কথা হয়েছে। তবে আমাদের হাতে একেবারেই সময় নেই। ৩ অক্টোবর আমরা বিশ্বকাপের ক্যাম্প করতে ওমান চলে যাব। কোচিং স্টাফরা সবাই ছুটিতে। কয়েকজন খেলোয়াড়ও ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে ব্যস্ত আছে। তাই এই স্বল্প সময়ের নোটিশে কোনোভাবেই দল পাঠানো সম্ভব নয়।'

একতরফা সিদ্ধান্তে আচমকা সিরিজ বাতিল করে চলে যাওয়ায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পুরো পাকিস্তান ফুঁসছে। দেশটির অনেকেই আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কটের দাবি তুলেছেন।

তবে পিসিবির সিইও এ সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছেন।

মন্তব্য করুন