সবেমাত্র শেষ হয়েছে ঘরোয়া ফুটবলের মৌসুম। নভেম্বরে মাঠে গড়াবে ফুটবলের নতুন মৌসুম। এখনও দলবদলের উইন্ডো ঘোষণা করেনি বাফুফে পেশাদার লিগ কমিটি। তার আগেই ঠিকানা বদলে ব্যস্ত ফুটবলাররা। ভাঙা-গড়ার খেলায় মেতেছে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোও।\হ২০১৮ সালে পেশাদার ফুটবলের সর্বোচ্চ স্তরে পা দেওয়া বসুন্ধরা কিংস ঘরোয়া ফুটবলের নতুন রাজা। তিন মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে দু'বার, ফেডারেশন কাপে দু'বার এবং স্বাধীনতা কাপে একবার শিরোপা জিতেছে বসুন্ধরা। জাতীয় দলের তারকা খেলোয়াড়দের সঙ্গে ভালো মানের বিদেশি খেলোয়াড়দের নিয়ে দল গঠন করে করপোরেট এ ক্লাবটি ছয় শিরোপার পাঁচটি জিতেছে। সাফল্যের ধারা আগামী মৌসুমেও ধরে রাখতে চায় তারা। অভিষেকের পর হ্যাটট্রিক লিগ শিরোপায় চোখ রাখা বসুন্ধরায় ভাঙনের সুরও বাজছে। এরই মধ্যে পাঁচ ফুটবলার ক্লাব ছেড়ে যোগ দিয়েছেন অন্য ক্লাবে। সুশান্ত ত্রিপুরা, নূরুল নাইম ফয়সাল এবং ইমন মাহমুদ কিংস ছেড়ে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন ঢাকা আবাহনীতে। গোলরক্ষক মিতুল হাসান সাইফ স্পোর্টিংয়ে এবং তারিক যোগ দিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রে। বাকি সবাইকে রেখে দিয়েছে বসুন্ধরা। ঘর যেমন ভেঙেছে, তেমনি করে ভালো মানের খেলোয়াড় আনার প্রক্রিয়ায় ক্লাবটি। বিশ্বস্ত সূত্রের মাধ্যমে জানা গেছে, ঢাকা আবাহনীর সোহেল রানাকে নিয়ে আসছে বসুন্ধরা। কথাবার্তাও অনেকটা চূড়ান্ত। মূলত লেফট উইংয়ে শক্তিশালী করার জন্যও সোহেল রানাকে আনছে বসুন্ধরা। এর সঙ্গে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ডিফেন্ডার ইয়াসিন আরাফাতের সঙ্গেও কথাবার্তা অনেকটা চূড়ান্ত করেছে ঘরোয়া লিগের চ্যাম্পিয়নরা। চুক্তি করেছে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের ডিফেন্ডার মেহেদির সঙ্গে। দেশির সঙ্গে ব্রাজিল জাতীয় দলে খেলা এক ফুটবলারের বসুন্ধরায় আসা প্রায় নিশ্চিত। রাউল অস্কার বেসেরা প্রত্যাশা মেটাতে না পারায় তার শূন্যস্থান পূরণে লাতিন আমেরিকার দিকেই ঝুঁকছে কিংস। সবকিছু ঠিকঠাক হলে সামনের মৌসুমে রবসন দ্য সিলভা, জোনাথন ফার্নান্দেজের সঙ্গে দেখা যাবে আরেক ব্রাজিলিয়ান।

বসুন্ধরা কিংসকে এবার চ্যালেঞ্জ জানাতে আগেভাগেই মাঠে নেমেছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ২০১২-১৩ মৌসুমে ট্রেবলজয়ী ক্লাবটি দীর্ঘদিনের শিরোপা খরা ঘোচাতে একঝাঁক তারকা খেলোয়াড় নিয়ে দল গঠন করেছে। বেশ কয়েকটি সূত্রের মাধ্যমে জানা গেছে, এবার জাতীয় দলের সাত ফুটবলারকে দলে ভেড়াচ্ছে রাসেল। সাইফ স্পোর্টিং থেকে ডিফেন্ডার রহমত মিয়া, ঢাকা আবাহনী থেকে সাদ উদ্দিন ও নাসির উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম আবাহনীর মানিক মোল্লা, মোহামেডানের হাবিবুর রহমান সোহাগ, উত্তর বারিধারার সুমন রেজা এবং বাংলাদেশ পুলিশ এফসি থেকে মোহাম্মদ জুয়েলের সঙ্গে সবকিছুই চূড়ান্ত করেছে শেখ রাসেল। ভেতরে ভেতরে ঘর গুছিয়ে ফেলছে ঢাকা আবাহনীও। প্রিমিয়ার লিগের সবচেয়ে বেশি শিরোপা জয়ী ক্লাবটি এবার বসুন্ধরা থেকে ত্রিপুরা, ইমন ও ফয়সালকে দলে ভিড়িয়েছে। চট্টগ্রাম আবাহনী থেকে রাকিব হোসেন, শেখ জামালের ডিফেন্ডার মনির হোসেনকে নেওয়ার সঙ্গে ছেড়ে দিয়েছে ডিফেন্ডার রায়হান হাসানকে। আক্রমণে সানজে সিজোবা, বেলফোর্টের সঙ্গে ব্রাজিলিয়ান রাফায়েল আগুস্তাকে নিয়ে আগামী মৌসুমে শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে নামবে আকাশি-নীল জার্সিধারীরা। হাঁকডাক দিলেও এবারও অতটা ভালো মানের দল গড়েনি আবাহনীর প্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। সর্বশেষ লিগে রানার্সআপ হওয়া শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব বসুন্ধরা কিংসের ডিফেন্ডার ইয়াসিন খানকে দলে ভিড়িয়েছে বলে বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে।

মন্তব্য করুন