নয় বছর আগে আইপিএলের ফাইনালে চেন্নাই সুপার কিংসের মুখোমুখি হয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। সেই ফাইনালে ইয়েলো আর্মিদের হারিয়ে শিরোপা জেতে কেকেআর। যেটা ছিল তাদের এই প্রতিযোগিতায় প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়া। ২০১২ সালের পর এবারের ফাইনালেও চেন্নাইয়ের সামনে কলকাতা। আজ দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি। যেখানে কলকাতা নামবে নিজেদের তৃতীয় ট্রফির আশায়। অন্যদিকে চেন্নাইয়ের টার্গেট কলকাতাকে হারিয়ে চতুর্থ শিরোপা জেতা।

করোনায় থমকে যাওয়া আইপিএলের অবশিষ্ট অংশে ভালোই চমক দেখায় কলকাতা। দলের ক্রিকেটাররা ব্যাটে-বলে একের পর এক নৈপুণ্য দেখিয়ে শেষ পর্যন্ত ফাইনালও নিশ্চিত করেন। সর্বশেষ দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে দিল্লি ক্যাপিটালসকে ৩ উইকেটে পরাজিত করে কলকাতা। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে ছক্কা হাঁকিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেন কলকাতার রাহুল ত্রিপাঠি। চেন্নাই ফাইনালে ওঠার পথে হারিয়েছিল একই প্রতিপক্ষকে। যে ম্যাচে ছিল ধোনি-ঝড়। ৬ বলে ৩ চার ১ ছক্কায় করেন অপরাজিত ১৮ রান। আজ কলকাতারও ভয় এই ধোনিকে নিয়ে। এই তো গেল ব্যাটার ধোনির কথা, অধিনায়ক ধোনি আরও ভয়ংকর। সেজন্য হয়তো ধোনিকে থামানোর জন্য আলাদা ছকই আঁকতে হতে পারে কেকেআরকে।

তা ছাড়া চেন্নাইয়ের সঙ্গে ফাইনালের স্মৃতি সুখকর হলেও ওভারল পারফরম্যান্স মোটেও স্বস্তির নয়। এখন পর্যন্ত দুই দলের ২৭ বারের দেখায় চেন্নাই জিতেছে ১৭টিতে, আর কলকাতা ৯টি। তবে কলকাতার প্রেরণা সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স। দারুণ একটা বোলিং বিভাগ। যেখানে ঘূর্ণিতে নিয়মিত ঝলক দেখাচ্ছেন উইন্ডিজ সুনিল নারিন। তার সঙ্গে ফাইনালে দেখা যেতে পারে আন্দ্রে রাসেলকেও। রাসেল একাদশে ঢুকলে জায়গা হারাবেন সাকিব আল হাসান।

চেন্নাই একাদশে খুব একটা পরিবর্তন আসবে না। চোটের কারণে গত কয়েক ম্যাচে মাঠের বাইরে সুরেশ রায়না। ফাইনালেও তার ফেরার চান্স খুবই কম। কেননা তার অবর্তমানে একাদশে জায়গা পাওয়া রবিন উথাপ্পা প্রথম কোয়ালিফায়ারে ব্যাট হাতে আলো ছড়ান।

মন্তব্য করুন